Thursday, August 11, 2022
Homeজাতীয়বঙ্গবন্ধু সারাটি জীবন মনুষ্য সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন: ড.কলিমউল্লাহ

বঙ্গবন্ধু সারাটি জীবন মনুষ্য সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন: ড.কলিমউল্লাহ

মুজিব শতবর্ষ এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’র ১০২তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে জানিপপ কর্তৃক আয়োজিত বর্ষকালব্যপী জুম ওয়েবিনারে এক বিশেষ সেমিনারের ৩২৭তম পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। জানিপপ-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর ড.মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন ইউএন ডিজএ্যাবিলিটি রাইটস্ চ্যাম্পিয়ন অনারারি প্রফেসর আবদুস সাত্তার দুলাল এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন, ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের ফ্যাকাল্টি কাজী ফারজানা ইয়াসমিন এবং পিএইচডি গবেষক শামসুন নাহার লাভলী।
সেমিনারে গেস্ট অব অনার হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন রংপুর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আর্জিনা খানম এবং মুখ্য আলোচক হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন গোপালগঞ্জস্হ বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এর বঙ্গবন্ধু ইনস্টিটিউট অব লিবারেশন ওয়ার এন্ড বাংলাদেশ স্টাডিজ এর অধীনে পিএইচডি গবেষণারত প্রশান্ত কুমার সরকার।
সভাপতির বক্তৃতায় ড.কলিমউল্লাহ বলেন,জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সারাটি জীবন মনুষ্য সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন।

আর্জিনা খানম বলেন, পদ্মা সেতু বাস্তবায়ন করে জাতির পিতার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রমাণ করেছেন তাঁর হাতেই উন্নয়ন সম্ভব। উন্নয়নের ধারাবাহিকতার পরিবেশ বজায় থাকলে ২০৪১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়া সময়ের ব্যাপার মাত্র বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।
আব্দুস সাত্তার দুলাল বলেন,পদ্মা সেতু একটি সুসমন্বিত নেতৃত্বের ফসল। পদ্মা সেতু বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদৃঢ় নেতৃত্বের প্রতীক হিসেবে বাঙালি জাতির জীবনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। তিন বিলিয়ন ডলারেরও বেশি খরচে নির্মিত সেতুর যথাযথ ব্যবস্থাপনার ওপর নজর দিতে হবে। জনাব দুলাল ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণ করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
প্রশান্ত কুমার সরকার বলেন, দেশপ্রেমের কোন বিকল্প নেই। বঙ্গবন্ধু দেশপ্রেমিক নাগরিক গড়ে তোলার জন্য সারা জীবন সংগ্রাম করে গেছেন।

শামসুন্নাহার লাভলী বলেন, পদ্মা সেতু বাংলাদেশের যোগাযোগের এবং উন্নয়নের প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণ যদি করা না যায় তাহলে শহরে এর চাপ বেড়ে যাবে অপ্রত্যাশিতভাবে ।যা নগরবাসীকে অসহনীয় করে তুলবে।

ফারজানা ইয়াসমিন বলেন, সেতুর দেখভালের জন্য দক্ষ ব্যবস্থাপনার পাশাপাশি নাগরিকদেরও দায়িত্বশীল আচরণ করতে হবে। পদ্মা সেতুর টোল আদায় সহ অন্যান্য ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার জন্যও দাবি জানান তিনি।

সেমিনারটি সঞ্চালনা করেন রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা’র সহযোগী অধ্যাপক,বিভাগীয় প্রধান ও ডেইলি প্রেসওয়াচ সম্পাদক দিপু সিদ্দিকী।
সেমিনারে অন্যান্যদের মধ্যে সংযুক্ত ছিলেন, যশোর থেকে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নুর এ আলম জাহিদ,রাজশাহী থেকে ডা.মনোয়ার।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular