Wednesday, May 25, 2022
Homeঅর্থনীতিশোষণ ও বৈষম্যমুক্ত বিজ্ঞানমুখী রাষ্ট্র কায়েমের স্বপ্ন এখনো সুদূরে পরাহত : পঙ্কজ...

শোষণ ও বৈষম্যমুক্ত বিজ্ঞানমুখী রাষ্ট্র কায়েমের স্বপ্ন এখনো সুদূরে পরাহত : পঙ্কজ ভট্টাচার্য

শোষণ ও বৈষম্যমুক্ত বিজ্ঞানমুখী রাষ্ট্র কায়েমের স্বপ্ন এখনো সুদূরে পরাহত : পঙ্কজ ভট্টাচার্য

 

ঢাকা ১৪ মে ২০২২ :

 

ভোজ্যতলসহ দ্রব্যমূল্য নিয়ে মন্ত্রী মহোদয়ের ব্যবসায়ীদের উপর বিশ^াসের কথা দায়িত্বহীন ও দেশবাসীকে হতাশ করেছে,  সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের সভায় পঙ্কজ ভট্টাচার্য।

সভায় পঙ্কজ ভট্টাচার্য আরো বলেন, যে আকাঙ্খা নিয়ে আমরা ৫১ বছর আগে স্বাধীনতা লাভ করেছি তা এখন তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে, মানুষের অসাহায়ত্ব এই সময়ে দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা এখন প্রতিনিয়িত বিকৃত ও সংকুচিত হচ্ছে। এখানে সাম্প্রদায়িকতা পৃষ্ঠপোষিত হয় নির্বাচন বৈতরনী পার হতে।

সংখ্যালঘু, আদিবাসী প্রতিনিয়ত নিগৃহীত হয় ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করতে। শোষণ ও বৈষম্যমুক্ত বিজ্ঞানমুখী রাষ্ট্র কায়েমের স্বপ্ন এখনো সুদূরে পরাহত। ভবিষৎ জাতীয় অগ্রযাত্রা, স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রেকে সমুন্নত রাখার স্বার্থে সকল নির্বাচনে মাফিয়া, সন্ত্রাসবাদ, লুটেরা, সাম্প্রদায়িকতাবাদী ও জঙ্গিবাদীদের কঠোর হস্তে দমন করতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গণতন্ত্র ও অসাম্প্রদায়িক সকল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে লড়তে হবে। আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে এখন থেকেই কালোটাকার দৌরাত্ম রুখতে হবে। সাম্প্রদায়িকতাবাদীদের নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করতে হবে।

সভায় ডা. সারওয়ার আলী বলেন, মেগা প্রজেক্টসহ দেশের আর্থসামাজিক পরিস্থিতি নিয়ে অর্থনীতিবিদগণ ইতোমধ্যে ভবিষৎ জাতীয় নিরাপত্তা ও অগ্রযাত্রা নিয়ে তথ্য উপাত্ত উপস্থাপন করেছেন। আমাদের উচিৎ হবে এইগুলো বিবেচনায় নিয়ে এখনই সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করা। বৈষম্যমুক্ত স্বদেশ গড়তে হলে ৭২এর সংবিধানের ধারায় দেশকে এগিয়ে নিতে হবে।

সাধারণ সম্পাদকের রিপোর্টে বলা হয়, বৈশি^ক মহামারী করোনা বিপর্যয় ও ইউক্রেন যুদ্ধ বিশ^ পরিস্থিতিকে জটিলতর করে তুলেছে। সেক্ষেত্রে আমাদের দেশে যেখানে সরকারের আরো দায়িত্বশীল ভূমিকা নেয়ার দরকার ছিলো দূর্ভাগ্যজনক হলো আমাদের রাষ্ট্রীয় সকল কাজে নীতিহীন ও বিবেকহীনদের অবাধ লুটপাটের চিত্র দেশবাসীকে হতাশ করেছে। অন্যদিকে শ্রীলঙ্কার মতো একটি উন্নয়নশীল রাষ্ট্রের বেদনাদায়ক পরিস্থিতির চেহারা স্মরণ করে দেশের সকল উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার অধিকতর স্বচ্ছতা ও জবাবদিহীতা নিশ্চিত করতে হবে। সংখ্যালঘু আদিবাসী ও ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জাতিসত্তার মানুষদের নিরাপত্তা জোরদার করতে হবে। নারী-শিশু নিপীড়ন কঠোর হস্তে দমন করতে হবে।

মানুষ যে ভালো নেই এটুকু বুঝার ক্ষমতা আমাদের ক্ষমতাসীন সরকার অনেক আগেই হারিয়ে ফেলেছে। সেই জন্যই ভোজ্য তেলসহ দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির পর সরকারের উচ্চ পর্যায়ের দায়িত্বশীলরা অসংলগ্ন বক্তব্য দিচ্ছেন। হটাৎ করে বাজার থেকে ভোজ্য তেল উধাও হয়ে যাবার তো কোন কারণ ছিলনা।

সারাদেশে মজুতদার আর অসাধু ব্যবসায়িরা হাজার হাজার লিটার তেল মজুত রেখে মানুষের পকেট কাটলো অথচ দেখার কেউ নেই, সরকারের যেমনটি করে বাজার ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করার কথা ছিলো, তেমনি অসাধু মজুতদারদের দমন করারও ব্যাপার ছিলো। ঈদ মৌসুমে পরিবহণ খাতে চাঁদাবাজি দমনে যেমন সরকার ব্যর্থ হয়েছে তেমনি অসাধু ব্যবসায়িদের কারসাজি রুখতেও সরকার ব্যর্থ হয়েছে।

আন্তর্জাতিক বাজারের ভোজ্য তেলের মূল্য বৃদ্ধির কথা বলে সরকার যে মূল্য নির্ধারণ করেছে দেশের কোথাও সেই নির্ধারিত মূল্যে ভোজ্য তেল পাওয়া যাচ্ছে না। ভোজ্যতলসহ দ্রব্যমূল্য নিয়ে মন্ত্রী মহোদয়ের ব্যবসায়ীদের উপর বিশ^াসের কথা দায়িত্বহীন ও দেশবাসীকে হতাশ করেছে। অন্যদিকে পার্বত্য বান্দরবান জেলায় সাম্প্রতিক সময়ে ¤্রাে আদিবাসীদের জুম চাষের শতাধিক একর জমিতে অগ্নি সংযোগ করে রাবার বাগান করার হীন প্রচেষ্টা কতটা ভয়াবহ তা বলার অপেক্ষা রাখেনা।

ক্ষুদ্রজাতিসত্তার এই অসহায় মানুষগুলো তাদের বেঁচে থাকার শেষ সম্বল হারিয়ে এখন মানবেতর জীবনযাপন করছে। দেশের খাদ্য ভান্ডার খ্যাত বৃহত্তর সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, নেত্রকোনার খাদ্য শষ্য উৎপাদন ও যোগান দেওয়া হাওড় অঞ্চল প্রতি বছর পানিতে তলিয়ে যাওয়ার ঘটনাটি এখন রেওয়াজে পরিণত করাটা মূলত দলবাজী ও সুবিধাবাধীদের পোয়াবারো হচ্ছে, কৃষককুল পরিবার পরিজন নিয়ে এখন দিশেহারা।

বিষয়টি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থার জন্য বিপদজ্জনক ও বেদনাদায়ক। অন্যদিকে টিআইবি ইতোমধ্যে বিদুৎ খাতসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে যে দুর্নীতির তথ্য উপস্থাপন করেছে তাতে বুঝা যাচ্ছে দেশটি এখন দুর্নীতিবাজ ও মাফিয়া চক্রের হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছে।
আজ ১৪ মে শনিবার বিকাল ৪টায় সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন কেন্দ্রীয় কার্যালয়, রুম নং-১, বাংলাদেশ টেনিস ফেডারেশন, শাহবাগ ঢাকায় পবিত্র ঈদ উত্তর দেশের পরিস্থিতিতে সংগঠনের করণীয় নির্ধারণকল্পে অনুষ্ঠিত সভায় সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য পঙ্কজ ভট্টাচার্য উপরোক্ত মন্তব্য করেন।

সভার শুরুতে সংগঠনের উপদেষ্টা খ্যাতিমান শিক্ষাবিদ, মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামানের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী ও বিশিষ্ট সাহিত্যিক কথাশিল্পী শওকত ওসমানের ২৪তম মৃত্যুদিবস উপলক্ষে প্রয়াতের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ১মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. সৈয়দ আব্দুল্লাহ আল মামুন চৌধুরী এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সাধারণ সম্পাদকের রিপোট পেশ করেন সালেহ আহমেদ, আলোচনায় অংশনেন প্রেসিডিয়াম সদস্য ডা. সারওয়ার আলী, এডভোকেট এসএমএ সবুর, আব্দুল মুনায়েম নেহেরু, জয়ন্তী রায়, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক একে আজাদ, কাজী সালমা সুলতানা, অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম, সম্পাদক মÐলীর সদস্য অলক দাস গুপ্ত, বিপ্লব চাক্মা, ঐক্য ন্যাপের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আসাদুল্লাহ তারেব, সামাজিক আন্দোলনের নেতা হারুনারর রশিদ ভূঁইয়া, কেন্দ্রীয় নেতা ড. সেলু বাসিত, আব্দুল ওয়াহেদ, সামসুল আলম জুলফিকার, , ঢাকা মহানগর নেতা বেলায়েত হোসেন, আজিজুর রহমান, জাহাঙ্গীর আলম, জুবায়ের আলম, প্রণব কুমার বিশ^াস প্রমুখ।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular