‘মুজিব বর্ষ ও সুবর্ণ জয়ন্তী বাংলা চলচ্চিত্র উৎসব, সিডনী ২০২১’ শীর্ষক বাংলা চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন

0
45
‘মুজিব বর্ষ ও সুবর্ণ জয়ন্তী বাংলা চলচ্চিত্র উৎসব, সিডনী ২০২১’ শীর্ষক বাংলা চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন
সিডনী ২৩ নভেম্বর ২০২১:
অদ্য ২৩ নভেম্বর ২০২১ তারিখে সন্ধ্যে ০৬:৩০ ঘটিকায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল, সিডনী কর্তৃক আয়োজিত ‘মুজিব বর্ষ ও সুবর্ণ জয়ন্তী বাংলা চলচ্চিত্র উৎসব, সিডনী ২০২১’ শীর্ষক বাংলা চলচ্চিত্র উৎসবের শুভ উদ্বোধন করা হয়।
সিডনীস্থ হয়টস এন্টারটেইনমেন্ট কোয়ার্টার, মুর পার্ক-এ অনুষ্ঠিত এ উদ্বোধনী ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে নিউ সাউথ ওয়েলস্ এর সংসদের উচ্চকক্ষের একজন সদস্যসহ স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ, অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তরের কর্মকর্তা ও অভিবাসী বাংলাদেশী নাগরিকগণ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানের শুরুতে সিডনীস্থ বাংলাদেশ কনসুলেট-এর কনসাল জেনারেল জনাব খন্দকার মাসুদুল আলম উপস্থিত অতিথিবৃন্দের উদ্দেশ্যে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। কনসাল জেনারেল বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পের ইতিহাস এবং আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের পদচারণার উপর আলোকপাত করেন।
বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের বিকাশে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভূমিকার কথা স্মরণ করে তিনি বলেন বঙ্গবন্ধু ১৯৫৭ সালে পূর্ব পাকিস্তানের প্রাদেশিক পরিষদে “পূর্ব পাকিস্তান চলচ্চিত্র উন্নয়ন সংস্থা (East Pakistan Film Development Corporation) বিল ১৯৫৭” প্রস্তাব করেন যার ভিত্তিতে ১৯৫৭/৫৮ সালে বাংলাদেশে প্রথম ফিল্ম স্টুডিও প্রতিষ্ঠিত হয়। এ উদ্যোগের ফলে বাংলাদেশে বাংলা চলচ্চিত্র বিকাশে নতুন যুগের সূচনা হয়। চলচ্চিত্র বিকাশে বঙ্গবন্ধুর বিশেষ ভূমিকাকে স্মরণ করেই তাঁর জন্ম শতবার্ষিকীতে সিডনীতে এ বাংলা চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্যোগটি নেয়া হয়েছে বলে কনসাল জেনারেল তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন।
সিডনীতে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত বাংলা চলচ্চিত্র উৎসবের পর্দা উন্মোচন করা হয় ইতিহাসভিত্তিক ডকুড্রামা “হাসিনা: অ্যা ডটার’স টেল” চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর মাধ্যমে। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জীবন নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্রটিতে বাঙ্গালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মম হত্যাকান্ড এবং তাঁর কন্যাদয়ের স্বজন হারানোর নির্মম অভিজ্ঞতা এবং ৭৫ পরবর্তী সময়ে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও তৎপরবর্তী ঘটনা প্রবাহ চিত্রায়িত হয়েছে।
এ ছাড়াও এ উৎসবে ‘ফাগুন হাওয়ায়’ এবং ‘স্ফুলিঙ্গ’ সিনেমা দুটি প্রদর্শিত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here