সিডিএসপি-বি এর উদ্যোগে ভূমিহীন পরিবারের মাঝে  প্রায় তিন শত একর কৃষি খাস জমির খতিয়ান বিতরন

0
27
সিডিএসপি-বি এর উদ্যোগে ভূমিহীন পরিবারের মাঝে  প্রায় তিন শত একর কৃষি খাস জমির খতিয়ান বিতরন
ঢাকা ১৪ নভেম্বর ২০২১ :
নোয়াখালী জেলার সুবর্ণচর উপজেলায় চর উন্নয়ন ও বসতি স্থাপন প্রকল্প- ব্রিজিং (সিডিএসপি-বি) এর উদ্যোগে ভূমিহীন পরিবারের মাঝে বন্দোবস্তকৃত প্রায় তিন শত একর কৃষি খাস জমির খতিয়ান বিতরণী অনুষ্ঠানে ১৩ নভেম্বর ২০২১ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, পিএএ।
জনাকীর্ণ ও বর্ণাঢ্য খতিয়ান বিতরণী এই অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন নোয়াখালী জেলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান।
খতিয়ান বিতরণী অনুষ্ঠানে সুবর্ণচর উপজেলার চরবাটা ইউনিয়নের দক্ষিণ চর মজিদ মৌজার প্রকল্পভূক্ত এলাকার ১৯২ টি ভূমিহীন পরিবারের হাতে সিডিএসপি প্রকল্পের আওতায় বন্দোবস্তকৃত ভূমির মালিকানা স্বত্ব তথা খতিয়ান তুলে দেয়া হয়। এছাড়া একই ইউনিয়নের সেলিম বাজার আশ্রয়ণ প্রকল্পে আশ্রিত ভূমিহীনদের মাঝে বিতরণকৃত খতিয়ানসহ মোট ২৪৯ টি পরিবারের মাঝে উক্ত খতিয়ানসমূহ হস্তান্তর করা হয়।
এ অনুষ্ঠানে খতিয়ান গ্রহণ করার জন্য পরিবারগুলোর স্বামী এবং স্ত্রী উভয়েই উপস্থিত ছিলেন। বন্টনকৃত খতিয়ানে স্বামী-স্ত্রীর মালিকানার হার সমান সমান হওয়া ছাড়াও খতিয়ানগুলোতে স্ত্রীর নাম প্রথমে রাখা হয় যা নারীর ক্ষমতায়নে ইতিবাচক ভূমিকা পালন করবে বলে সুধীমহল মনে করছেন।
এ সময় ভূমি সচিব বক্তব্যে প্রদানকালে বলেন, ভূমিহীন পরিবারের মাঝে খাস জমির খতিয়ান বিতরণ বর্তমান সরকারের একটি অন্যতম প্রধান অগ্রাধিকারমূলক কার্যক্রম।
মোস্তাফিজুর রহমান আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশের কোনো মানুষ ভূমিহীন থাকবেনা, বাংলাদেশের কোনো মানুষ গৃহহীন থাকবে না – এই অনুশাসনের আলোকে সিডিএসপি প্রকল্প নোয়াখালীর প্রত্যন্ত চর এলাকায় ভূমিহীনদের মাঝে কৃষি খাসজমি বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে।
সভাপতির বক্তব্যে নোয়াখালীর জেলা প্রশাসক বলেন, ভূমিহীনদের মাথা গোঁজার ঠাঁই, স্বাবলম্বী ও আত্মকর্মসংস্থানের লক্ষ্যে সরকার এ খাস জমি ভূমিহীনদের মাঝে দীর্ঘমেয়াদী বন্দোবস্তের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। এ জমি উত্তরাধিকার সূত্র ব্যতীত অন্যত্র হস্তান্তরযোগ্য নয়।
উল্লেখ্য যে, সিডিএসপি-বি প্রকল্প নোয়াখালী জেলার সুবর্ণচর ও কোম্পানীগঞ্জ জেলায় এবং চট্টগ্রাম জেলার সন্দ্বীপ উপজেলায় চলমান রয়েছে। প্রকল্পের মেয়াদ জুন ২০২২ সাল পর্যন্ত রয়েছে।
এই সময়ের মধ্যে ৩ টি উপজেলায় মোট ৬০০০ পরিবারের মধ্যে ৭০০০ একর ভূমি বন্দোবস্ত প্রদানের পরিকল্পনা রয়েছে।
অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন চর উন্নয়ন ও বসতি স্থাপন প্রকল্পের ভূমি বন্দোবস্ত উপদেষ্টা মোঃ রেজাউল করিম, নোয়াখালীর সুবর্ণচরের উপজেলা নির্বাহী অফিসার চৈতি সর্ববিদ্যা সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাগণ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here