রাধারমণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

0
25

রাধারমণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

 

 

সুনামগঞ্জ  ১৩ নভেম্বর ২০২১ :

 

সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, বাংলা লোকসংগীতের পুরোধা লোককবি রাধারমণ দত্ত। তাঁর রচিত ধামাইল গান সিলেট ও ভারতে বাঙালিদের কাছে পরম আদরের ধন। রাধারমণ নিজের মেধা ও দর্শনকে কাজে লাগিয়ে মানুষের মনে চিরস্থায়ী আসন করে নিয়েছেন। তাঁর জন্মস্থান সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের কেশবপুর গ্রামে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় হতে ‘রাধারমণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র’ নির্মাণের প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। আশা করি, আগামী ২০২২ সালের জুন মাসের মধ্যেই আমরা প্রকল্পটি পরিকল্পনা কমিশনে পাঠাতে পারবো।

প্রতিমন্ত্রী আজ সকালে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার কেশবপুর গ্রামে রাধারমণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের জায়গা পরিদর্শন উপলক্ষে ‘রাধারমণ সমাজ কল্যাণ সাংস্কৃতিক পরিষদ’ এর সহযোগিতায় উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত স্থানীয় সাংস্কৃতিক নেতৃবৃন্দ ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে মতবিনিময় ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথি বলেন, বৃহত্তর সিলেট অঞ্চল লোকসংস্কৃতিতে সমৃদ্ধ জনপদ। রাধারমণ ছাড়াও এখানে জন্ম হয়েছে হাছন রাজা, শাহ আব্দুল করিম, দূরবীণ শাহ প্রমুখ লোক মনীষীগণ। সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, গীতিকবি রাধারমণ দত্তের প্রতিটি সৃষ্টিকে সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তার সকল সৃষ্টি অবিকৃতভাবে সংরক্ষণের চেষ্টা চলছে। তিনি বলেন, রাধারমণ দত্তের সম্পত্তি দীর্ঘ ৬০ বছর অবৈধ দখলে ছিল। সেই সম্পত্তি (৩ একর ১৪ শতক) আইনি প্রক্রিয়ায় উদ্ধারপূর্বক রাধারমণ কমপ্লেক্স নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে এবং সেজন্য ৬০ শতক জায়গা নির্ধারণ করে প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে।

জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সাজেদুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী রেজাউল করিম রেজু, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব প্রমুখ।

প্রতিমন্ত্রী এরপর দিরাই উপজেলার উজানধলে বাউলসম্রাট শাহ আবদুল করিমের সমাধিসৌধ ও স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করেন এবং সুনামগঞ্জ জেলা শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here