ইসলামের ভ্রাতৃত্ব ও মূল্যবোধের সঠিক প্রচার ও প্রসারের লক্ষ্যে সরকার নানাবিধ পদক্ষেপ নিয়েছেন : ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ১৩ জুন ২০২১:

 

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান বলেছেন, ইসলামের ভ্রাতৃত্ব ও মূল্যবোধের সঠিক প্রচার ও প্রসারের লক্ষ্যে বর্তমান সরকার নানাবিধ পদক্ষেপ নিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইসলামের নামে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে অনেক আগেই জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছেন। আর তাই  উগ্রবাদ ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ইসলামের ‘প্রকৃত মর্মবাণী’ প্রচার করার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে ৫৬০টি মডেল মসজিদ নির্মাণ করছেন যার মধ্যে সম্প্রতি প্রাথমিক পর্যায়ে ৫০টি মডেল মসজিদ উদ্বোধন করা হয়েছে। এসব মসজিদে  প্রতি বছর ১৪ হাজার হাফেজে-কোরআন হিফজ করার সুযোগ পাবে।

প্রতিমন্ত্রী আজ ঢাকা ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল ২০২০ উপলক্ষ্যে আয়োজিত আন্তর্জাতিক ক্বিরাত প্রতিযোগিতার চূডান্ত পর্বে ভার্চুয়ালি অংশ নিয়ে প্রধান অতিথিরি বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, আন্তর্জাতিক এই কুরআন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ইসলামের সুমহান শিক্ষা অর্জনে তরুণ সমাজ অনেক বেশি অনুপ্রাণিত হবে। ইসলাম শান্তি, সাম্য ও ঐক্যের কথা বলে। এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রণকারীরা ইসলামের শান্তির বার্তা সারা পৃথিবীব্যাপী ছড়িয়ে দিতে সক্ষম হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ নূরুল ইসলাম পিএইচডি। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ইসলামিক কো-অপারেশন ইয়ুথ ফোরাম (ওঈণঋ) এর প্রেসিডেন্ট তাহা আইহানসহ ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এবং ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং বিশিষ্ট ওলামায়ে কেরামগণ ভার্চুয়ালি সংযুক্ত ছিলেন।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মুকাররম মিলনায়তন থেকে বাংলাদেশ অঞ্চলের সম্মানিত ৩ জন বিচারক ও ইসলামিক কো-অপারেশন ইয়ুথ ফোরাম (ওঈণঋ) কর্তৃক নির্বাচিত বিচারক ইয়াসার চোহাদার তুরস্ক থেকে ভার্চুয়ালি  অংশ নিয়ে প্রতিযোগিতার বিচারকাজ সম্পন্ন করেন। সারা বিশ্বের ৬টি অঞ্চল যথাক্রমে বাংলাদেশ, এশিয়া, আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য, আমেরিকা, ইউরোপ, ওশেনিয়া থেকে নির্বাচিত ১৫ জন প্রতিযোগী চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। সারা বিশ্বের প্রায় ৪ শত জন প্রতিযোগী উক্ত প্রতিযোগীতায় অংশ নেন। বাংলাদেশ থেকে মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান, মাসউদ রিদওয়ান ও আমানউল্লাহ আল কাফি এই তিনজন প্রতিযোগী চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, এবছর ২৪ ফেব্রুয়ারি মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে ভার্চুয়ালি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে উক্ত প্রতিযোগিতা উদ্বোধন করা হয়।