কচুয়া থানা পুলিশের অভিযানে চোর চক্রের ৪ জন গ্রেপ্তার; চোরাই স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা উদ্ধার

রাজীব চন্দ্র শীল:

চাঁদপুর জেলার কচুয়া থানা পুলিশের অভিযানে চোর চক্রের ৪ জন গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং চোরাই স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা উদ্ধার করেছে কচুয়া থানা পুলিশ।ফাঁকা বাসাবাড়ীকে টার্গেট করে সুবিধাজনক সময়ে বাসা সংলগ্ন গাছ বেয়ে ছাদে উঠে ছাদের সিঁড়ির অংশের দরজা বা টিন খুলে সংগোপনে ঘরে ঢুকে নগদ টাকা,স্বর্ণালংকার,মোবাইল ফোন, হালকা বহনযোগ্য দামী জিনিসপত্র চুরি করাই তাদের নেশা এবং পেশা। কচুয়া সহ আশেপাশের উপজেলায় দীর্ঘদিন এভাবেই চুরি করে যাচ্ছিল চক্রটি। কিন্তু কথায় আছেনা সাত দিন চোরের আর এক দিন গৃহস্থ্যের।

কচুয়া উপজেলার কাদলা গ্রামের একটি বাড়ীতে একই কায়দায় চুরি করার পর বাঁধে বিপত্তি। গত ৩১ মার্চ দিবাগত রাত অনুমান ১১ টার দিকে কাদলা প্রধানীয়া বাড়ীর প্রবাসী মনোয়ার হোসেনের ফাঁকা বিল্ডিং বসতঘরে পাশের কদমগাছ বেয়ে ছাদে উঠে ছাদের টিনের ফাঁকা একটু অংশ দিয়ে ঘরে ঢুকে নগদ ১,৫৫,০০০/- টাকা, প্রায় পৌনে পাঁচ ভরি ওজনের বিভিন্ন স্বর্ণালংকার, কিছু দামী কাপড়চোপড় ও কসমেটিক্স চুরি করে নিয়ে যা চক্রটি। পরিকল্পনা অনুযায়ী চোরাই স্বর্ণালংকার নেয় হাজীগন্জের স্বর্ণ ব্যবসায়ী রিয়াদ। দিদারের মামার কাছে রাখা হয় চোরাই নগদ টাকা ও কিছু স্বর্ণালংকার। কিন্তু এবার চক্রটির জন্য বিধিবাম হয়।

সংশ্লিষ্ট প্রবাসী চুরির ঘটনাটি থানায় জানানোর পর অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের নির্দেশে এসআই দেলোয়ার হোসেন, এএসআই সাগর সেন ও এএসআই কামরুজ্জামানের সমন্বয়ে একটি বিশেষ টিম গঠণ করা হয়। সহকারী পুলিশ সুপার কচুয়া সার্কেল জনাব রিজওয়ান সাঈদ জিকু’র তত্ত্বাবধানে টিম ৩ই এপ্রিল বুধবার মধ্য রাত থেকে সকাল পর্যন্ত হাজীগঞ্জ ও কচুয়া থানার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে সংঘবদ্ধ চক্রটির ঘটনায় জড়িত ৪ জনের সবাইকে আটক করে এবং তাদের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে হাজীগঞ্জের পৌর হকার্স মার্কেটের রিয়াদের স্বর্ণের দোকান থেকে চোরাই যাওয়া স্বর্ণালংকার হতে ০১ ভরি ৭ আনা ওজনের ৩টি স্বর্ণের আংটি, ইমানের ঘরের আলমারীর ড্রয়ার থেকে থেকে ৩ জোড়া স্বর্ণের কানের দুল, ১টি স্বর্ণের চেইন, নগদ ১,৩৯,০০০/- টাকা এবং ০১ টি পাঞ্জাবী ও ০১টি শাড়ী উদ্ধার করে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন মোঃ দিদার হোসেন (২৩), পিতা-মোঃ ইয়াকুব হোসেন, মাতা-আলেয়া বেগম, সাং-কাদলা (গাইন বাড়ী), ৫নং ওয়ার্ড, ৮নং কাদলা ইউপি, থানা-কচুয়া, জেলা-চাঁদপুর, মোঃ এমরান হোসেন প্রকাশ ঈমান (৩২), পিতা-মৃত ছিদ্দিকুর রহমান, মাতা-রহিমা বেগম, সাং-টোরাগড়, পৌরসভা, পোষ্টঃ হাজীগঞ্জ, থানা-হাজীগঞ্জ, জেলা-চাঁদপুর, মোঃ বশির হোসেন (৩৪), পিতা-আব্দুল বাতেন খন্দকার, মাতা-কুলছুমা বেগম, সাং-সাড়াসিয়া (খন্দকার বাড়ী), পোষ্টঃ সুহিলপুর, বর্তমানে-মনির হোসেন এর ভাড়াটিয়া, সাং-টোরাগড়, পৌরসভা, ৮নং ওয়ার্ড, থানা-হাজীগঞ্জ, জেলা-চাঁদপুর, ও মোঃ রিয়াদ হোসেন (২৬), পিতা-আব্দুল বাতেন খন্দকার, মাতা-কুলছুমা বেগম, সাং-সাড়াসিয়া (খন্দকার বাড়ী), পোষ্টঃ সুহিলপুর, থানা-হাজীগঞ্জ, জেলা-চাঁদপুর।
উক্ত ঘটনায় কচুয়া থানায় রুজুকৃত নিয়মিত মামলায় আসামীদের আজ ৪ই এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সর্বশেষ