আবগারি দুর্নীতি মামলায় গ্রেফতার দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল

 

ঝাড়খণ্ডের পর দিল্লি, গ্রেফতার আরও এক বিরোধী রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে গ্রেফতার করল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি। দিল্লির আবগারি দুর্নীতি মামলায় ন’বার এড়িয়েছেন সমন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকেই তাঁর বাড়িতে চলছিল ইডির তল্লাশি।সূত্রের খবর, ১২ জনের ইডি আধিকারিকের একটি দল  দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে যায়। তল্লাশি অভিযানের জন্য প্রয়োজনীয় নথি দেখিয়েই  মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে প্রবেশ করে তারা। তাঁর বাসভবনের সামনে মোতায়েন করা হয় দিল্লি পুলিশ। নিরাপত্তাও আঁটসাঁট করা  হয়। তখনি বোঝা যাচ্ছিলো পরিস্থিতি অন্য দিকে মোড় নিতে চলেছে। হলোও তাই। খবর পাবার পর আপ নেতা তথা দিল্লির মন্ত্রী অতীশি বলেছেন, “ইডি অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে গ্রেফতার করেছে।
আমরা সবসময় বলেছি, জেল থেকেই সরকার চালাবেন যে অরবিন্দ কেজরিওয়াল। তিনি দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর পদেই থাকবেন। আমরা সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেছি। আমাদের আইনজীবীরা সুপ্রিম কোর্টে পৌঁছেছেন। আমরা আজ রাতেই সুপ্রিম কোর্টে জরুরি শুনানির দাবি জানাব।” ইতিমধ্যেই দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর  বাড়ির বাইরে বিপুল সংখ্যায় ভিড় জমিয়েছেন আপ সমর্থকরা। ইডি ও দিল্লি পুলিশের পদক্ষেপের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন তাঁরা। প্রতিবাদীদের বেশ কয়েকজনকে আটক করে দিল্লি পুলিশ। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনের বাইরে ১৪৪  ধারা জারি করা হয়েছে।

অতীশি বলেছেন, “স্পষ্টতই ইডি এবং তাদের প্রভু, বিজেপি, আদালতকে সম্মান করে না। যদি তা হত, তাহলে তারা আজই অরবিন্দ কেজরিওয়ালের  বাড়িতে অভিযান চালাতে আসত না। এটা একটা রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র। ”দিল্লি হাইকোর্টে রক্ষাকবচ চেয়েছিলেন কেজরিওয়াল। কিন্তু, হাইকোর্ট তাঁকে খালি হাতেই ফিরিয়েছে। ইডির গ্রেফতারি থেকে রক্ষাকবচ দিতে রাজি হয়নি। এরপর, বৃহস্পতিবার রাতেই আবগারি মামলার তদন্তে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে হানা দেন ইডির কর্তারা।

সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

সর্বশেষ