অবিলম্বে ১০ম ওয়েজবোর্ড গঠন ও ৯ম ওয়েজ বোর্ড রোয়েদাদের বকেয়া পরিশোধ করুন : বিএফইউজে

অবিলম্বে সাংবাদিক ও সংবাদপত্র কর্মচারী শ্রমিকদের জন্য দশম ওয়েজ বোর্ড গঠন করতে সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের প্রতি আহবান জানিয়েছে বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন।
বিএফইউজের সভাপতি ওমর ফারুক ও মহাসচিব দীপ আজাদ আজ এক বিবৃতিতে এ আহবান জানান।
বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় ২০১৯ সালের ১২ সেপ্টেম্বর ঘোষিত ৯ম ওয়েজ বোর্ড রোয়েদাদ সকল প্রতিষ্ঠানে বাস্তবায়ন ও রোয়েদাদের বকেয়া পাওনা পরিশোধের জন্য মালিক কর্তৃপক্ষের প্রতি দাবি জানান।
এছাড়াও বিএফইউজে বকেয়া প্রায় ১১শ’ কোটি টাকা আদায়ে সরকারের সক্রিয় হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
এতে তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা গত বছরের ২ নভেম্বর বিএফইউজে’র সম্মেলনে ১০ম ওয়েজ বোর্ড গঠনের নির্দেশ দেন। কিন্তু দুঃখজনক বিষয় হচ্ছে এখনো তা বাস্তবায়ন হয়নি। অথচ আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারেও বিষয়টির উল্লেখ রয়েছে।
নেতৃদ্বয় বলেন, সরকার ২০১৯ সালে ৯ম ওয়েজবোর্ড দিয়েছে। কিন্তু মালিকপক্ষ এখনো তা অমান্য করে চলেছে। তাই তারা ৯ম ওয়েজ বোর্ড রোয়েদাদের বকেয়া আদায়ে সরকারের সক্রিয় সহযোগিতা কামনা করেন।
ওমর ফারুক ও দীপ আজাদ আরো বলেন, বাংলাদেশে বেসরকারি টেলিভিশন ও অনলাইন গণমাধ্যমের বিকাশের ফলে প্রচুর কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছে সত্য। কিন্তু মালিক নামের একটি শক্তি মেধাবী সাংবাদিকদের শ্রম শোষণের হাতিয়ার হিসেবে তা ব্যবহার করছে। বেতন বৈষম্যসহ নানা অনিয়মের কারণে টেলিভিশন সাংবাদিকদের জীবন এখন দুর্বিষহ।
নেতৃদ্বয় টেলিভিশনে একটি অভিন্ন বেতন কাঠামো তৈরির জন্য সরকার ও টিভি মালিকদের সংগঠন এ্যাটকো’র প্রতি আহবান জানান।
এ বেতন কাঠামো যাতে আগামী ১০ম ওয়েজ বোর্ড রোয়েদাদে অন্তর্ভুক্ত হতে পারে সে ব্যপারে ব্যবস্থা গ্রহণেরও দাবি জানান।
তারা বলেন, ঈদের আগে বেতন বোনাস ও বৈশাখী ভাতা যাতে পরিশোধ করা হয় সে ব্যাপারে বিএফইউজে’র অন্তর্ভুক্ত সব সাংবাদিক সংগঠন পর্যবেক্ষণে থাকবে।
প্রয়োজন হলে সহযোগিতা প্রদানের জন্য প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান তারা।

সর্বশেষ