সাগর-রুনি হত্যা মামলার প্রকৃত অপরাধীদের ধরতে পুলিশ তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে-আইনমন্ত্রী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ

সাংবাদিক সাগর-রুনির যারা প্রকৃত হত্যাকারী তাদেরকে ধৃত করার জন্য সব রকম চেষ্টা করেও যদি সময় লাগে, এবং আপেক্ষিকভাবে আমি বলেছি ৫০ বছরও যদি লাগে, যারা এই হত্যাটা করেছে তাদেরকে ধরার জন্য যতই সময় লাগুক কিন্তু তাদেরকে আমরা ধরব। আমি এই কথাটাই বলেছি। আর আপনারা মনে করেছেন তদন্তের জন্য ৫০ বছর লাগবে। শুক্রবার (২ফেব্রুয়ারি) সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় রেলওয়ে জংশন স্টেশনে সাগর-রুনি হত্যার তদন্তের জন্য প্রয়োজনে ৫০ বছর অপেক্ষা করতে হবে আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে, বক্তব্যের ব্যাখ্যা চেয়ে সাংবাদিকরা অনুরোধ করলে,আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক এসব কথা বলেন।

আইনমন্ত্রী আরো বলেন, এটা বিতর্কের প্রশ্ন না।
আমার দুঃখ হয় এ কারণে, আপনাদের জন্য ভাল কথা বললেও আপনারা এটাকে অন্যভাবে নেন। আমার কথা হচ্ছে সুষ্ঠ তদন্ত হওয়া উচিত, আসল অপরাধীকে ধরা উচিত। আইনি কাঠামোতে বলা আছে, যে অপরাদী নয় তাকে হয়রানি করা যাবে না। প্রকৃত অপরাধীকেই ধরতে হবে। আমি সেটাই বলেছি।আর আপনারা গেলেন ক্ষেপে। এসময় হাস্যজ্জল মূখে মন্ত্রী বলেন, আমি বুঝি না-আপনাদের জন্য ভাল কথা বললেও আপনারা ক্ষেপে যান কেন।

সাংবাদিক সাগর-রুনি হত্যা মামলার তদন্ত কার্যক্রম বিলম্ব ও ধীর গতীতে হচ্ছে কিনা? কোন মামলার তদন্ত কার্যক্রমে এমন ধীরগতির নজির রয়েছে কি না? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, পৃথিবীতে অনেক মামলার নজির আছে। ইউনাইটেড কিংডমে একটি মামলায় প্রকৃত অপরাধীকে ৪২ বছর পর ধরতে সক্ষম হয়েছে। কিছুদিন আগেও আমেরিকাতে দীর্ঘ ২৪ বছর পর প্রকৃত অপরাধীকে ধরতে সক্ষম হয়েছে। সাগর-রুনি হত্যা মামলার প্রকৃত অপরাধীদের ধরতে পুলিশ তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত তারা প্রকৃত হত্যাকারীদের ধরতে পারছে না, সেজন্যই তদন্তে সময় লাগছে। তবে যতদিন পর্যন্ত প্রকৃত অপরাধীদের চিহৃিত করে ধরতে না পারবে, ততদিন সাগর-রুনি হত্যা মামলার তদন্ত চলবে। পরে তিনি কসবার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন।

এসময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাবেয়া আক্তার, উপজেলা আওয়ালীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী চৌধুরী,সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সম্ভাব্য ভাইস-চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সাহাবুদ্দিন বেগ শাপলু, সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন নয়ন,আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ নুরে আলম সহ আওয়ালীগের বিভিন্ন নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ