ভৈরবে বিশেষ ক্লাসের বেতন না দেওয়ায় স্কুল থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ

এম আর ওয়াসিম ভৈরব(কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি : বুধবার উপজেলা শিক্ষা অফিসের সামনে দশম শ্রেণির প্রায় ২০/২৫ জন শিক্ষার্থী অবস্থান নেয়। বুধবার উপজেলা শিক্ষা অফিসের সামনে দশম শ্রেণির প্রায় ২০/২৫ জন শিক্ষার্থী অবস্থান নেয়। কিশোরগঞ্জের ভৈরবে বিশেষ ক্লাসের বেতন না দেওয়ায় শিক্ষার্থীদের স্কুল থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে পৌর শহরের কমলপুর হাজী জহির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ে। বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) এমন অভিযোগ এনে উপজেলা শিক্ষা অফিসে অবস্থান নেয় ওই বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির প্রায় ২০/২৫ জন শিক্ষার্থী। উপস্থিত ছিল।
শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে, এসএসসি পরীক্ষার জন্য আমাদের কোনো ক্লাস হচ্ছে না। তবে বিশেষ ক্লাসের নামে একটি ক্লাস চালু রয়েছে। আমরা সকল ছাত্রছাত্রীর বিশেষ ক্লাস বাধ্যতামূলক করতে হয়। আমাদের ক্লাসের বেতন ধরা হয়েছে ৫০০ টাকা। মাসিক পরীক্ষার ফি ১০০ টাকা। মোট ৬০০ টাকা প্রতি মাসেই আমাদের গুনতে হচ্ছে। কিন্তু আমাদের মধ্যে কিছু শিক্ষার্থী রয়েছে অসচ্ছল পরিবারের। আমাদের অনেকের সামর্থ্য নেই। টাকার জন্য আমরা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারিনি। এবিষয়ে আমরা উপজেলায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছি। আশা করি এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ কররবেন।
এ বিষয়ে কমলপুর হাজী জহির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লেফটেন্যান্ট মো. অহিদুর রহমান বলেন, শিক্ষার্থীদের অভিযোগের বিষয়ে আমার কাছে কেউ কিছু জানায়নি। তবে এসএসসি পরীক্ষা চলাকালীন বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় শুধুমাত্র দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ ক্লাস নেওয়া হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের অভিযোগের জবাবে তিনি বলেন, যদি কোনো শিক্ষক শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বাজে ব্যবহার করেন, তার প্রমাণ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক এনায়েত উল্লাহ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কোনো ধরনের খারাপ ব্যবহার করিনি। তারা আমাদের বিরুদ্ধে সম্পূর্ণ মিথ্যা বলছে।

এ বিষয়ে ইউএনও এ কে এম গোলাম মোর্শেদ খান বলেন, গত মঙ্গলবার শিক্ষার্থীদের একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

সর্বশেষ