নরসিংদীর মনোহরদীতে ইউপি সদস্যার বিরিয়ানি খেয়ে নারী-পুরুষ অসুস্থ

হাবিব উল্লাহ ঃ মনোহরদীতে এক ইউপি সদস্যার দেয়া বিরিয়ানি খেয়ে ১৬টি মসজিদের মুসল্লী ও তাদের পরিবারের শতাধিক লোকজনে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। গতকাল শুক্রবার জুমুআর দিনে ইউপি সদস্যা তার নির্বাচনী এলাকার জুমুআর মসজিদ সমূহে এই বিরানি দেন এবং এতে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়।

মনোহরদীর খিদিরপুর ইউনিয়নের ৪,৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যা সেলিনা বেগম গতকাল শুক্রবার তার এলাকার ১৬ টি জুমুআর মসজিদে ২ হাজার ৫ শ’ বিরানির প্যাকেট বিতরন করেন।জানা যায়,তার নিজ বাড়ীতে বাবুর্চি দিয়ে বিরানি রান্না করে পূর্ব ও পশ্চিম রামপুর,নূরআহাম্মদপুর,
চরসাগরদী ইত্যাদি গ্রামের জুমুআর মসজিদে এই বিরিয়ানির প্যাকেট বিতরন করা হয়।ভুক্তভোগী মুসল্লীদের দাবী,এ বিরানি খেয়ে তারা ও তাদের পরিবারসহ এলাকার দেড় শতাধিক লোক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।তারা বমি,ডায়রিয়া,পেট ব্যথা ও জ্বরে আক্রান্ত হন।বিষয়টি এলাকার জনমনে ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে।এ ব্যাপারে এক ভূক্তভোগী নূর আহাম্মদপুর গ্রামের কালাম (৩২) জানান,এ বিরানি খেয়ে রাত ২ টা থেকে তিনি এবং তার পরিবারের ৩ সদস্যসহ যে যে বিরানি খেয়েছেন তাদের প্রায় সবাই পেটব্যথা,
বমি ও জ্বরসহ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন।একই গ্রামের আবু সায়েদ (২৫) জানালেন,তারও একই অবস্থা এখনো।রামপুর বাজার মসজিদের ইমাম ও খতীব ক্কারী ওসমান গনি জানালেনে,এ বিরানি খেয়ে তার মেয়েও অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।এ ছাড়াও রামপুরের অনেকেই তাকে বিরানি খেয়ে অসুস্থতার কথা জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে খিদিরপুর ইউনিয়নের ৪,৫ ও ৬ নম্বর ইউপি সদস্যা সেলিনা বেগম জানান,তিনি সৎ উদ্দেশ্যে নেক নিয়তে ২ হাজার ৫ শ’ বিরানির প্যাকেট জুমুআর মসজিদগুলোতে দিয়েছিলেন।এতে কিসে থেকে কি হয়ে গেলো বুঝতে পারছেন না তিনি।তাই অসুস্থদের বাড়ী বাড়ী গিয়ে খোঁজ নিয়ে তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে মনোহরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টি এস মোঃ রাশেদুল ইসলাম মোবাইল ফোনে বলেন আমি শুনেছি,এ পর্যন্ত প্রায় ১৫-২০ জন রোগী এখানে এসেছেন তাদের চিকিৎসার দেওয়া হয়েছে, খাবার সম্ভবত স্বাস্থ্যসমত ছিল না। যার ফলে এটা হয়েছে।

সর্বশেষ