ব্লেড দিয়ে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে দিলো স্ত্রী

এম এইচ শাহীন, স্টাফ রিপোর্টার : গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কোনাবাড়ীতে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে দেওয়ার অভিযোগে প্রথম স্ত্রী নিপা আক্তার (৩৪) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৫ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে মহানগরের কোনাবাড়ীর জরুন উত্তর পাড়া এলাকার আব্দুর রশিদ এর ভাড়া বাসা থেকে স্বামীর পুরুষাঙ্গ ব্লেড দিয়ে কেটে দেওয়ার ঘটনায় স্ত্রী নিপা আক্তারকে গ্রেফতার করে জিএমপি’র কোনাবাড়ি থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত নিপা আক্তার পটুয়াখালী জেলার
মির্জাগঞ্জ থানার দক্ষিণ গাবুড়া গ্রামের আব্দুস সাত্তার এর মেয়ে। স্বামী আবুল হোসেন বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ থানার কৃষ্ণ কাঠি গ্রামের নূর মোহাম্মদের ছেলে। তারা ভাড়া বাসায় থেকে স্থানীয় পোশাক কারখানায় কাজ করতো। জানা যায়, আবুল হোসেনের ১ম স্ত্রী নিপা আক্তার। তারা আব্দুর রশিদের ভাড়া বাসায় থেকে স্থানীয় পোশাক কারখানায় কাজ করতো।

জানা যায়, পুরুষাঙ্গ ব্লেড দিয়ে কেটে স্বামী আবুল হোসেন কে অভিযুক্ত নিপা আক্তার নিজেই হাসপাতালে নিয়ে যান।

বাসার মালিক আব্দুর রশিদ বলেন, গত শুক্রবার
(১২ জানুয়ারি) রাত দেড়টা সময় আবুল হোসেনের চিৎকারে আমাদের ঘুম ভাঙ্গে। কি হয়েছে জানতে চাইলে তার স্ত্রী নিপা আক্তার বলেন, পুরুষাঙ্গে পোকায় কামড় দিছে। পরে তাকে স্থানীয় কোনাবাড়ী ক্লিনিকে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। ওই রাতেই গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজের জরুরী বিভাগের ডাক্তার আমার নাম্বারে ফোন করে বলে আবুল হোসেনের পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলেছে তার স্ত্রী। তখন আমরা বিষয়টি জানতে পারি। তিনি আরো বলেন, রোববার রাতে তার স্ত্রী নিপা আক্তার আবার বাসায় আসে। আমরা তাকে জিজ্ঞেস করলে বলে সুস্থ আছে। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বাসায় থাকলেও বিকেলে সে বাসা থেকে পালানোর চেষ্টা কর। পরে আমরা তাকে আটক করি। বিষয়টি কোনাবাড়ি থানা পুলিশকে অবগত করলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।

আবুল হোসেনের দ্বিতীয় স্ত্রী হাসনা বেগম বলেন, আমার স্বামী শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিল। গত ৬ বছর আগে আমার সাথে বিয়ে হয়েছে। আমাদের একটি সন্তান রয়েছে। আমার স্বামী অসুস্থ থাকায় ঠিক মতো কাজ কাম করতে পারত না। আমরা দুজনই গার্মেন্টসে চাকরি করে চলতাম। কি কারনে সে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে বুজতে পারছিনা? তিনি আরো বলেন,বর্তমানে আমার স্বামী উত্তরা সিন সিন জামান হসপিটালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে।

অভিযুক্ত নিপা আক্তার বলেন, আসলে আমার মাথায় ভূত চেপে বসেছিল। কেন এমন করেছি বলতে পারছিনা? এসময় তিনি উপস্থিত সবার সামনে অকপটে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কাটার কথা স্বীকার করেন।

এ বিষয়ে গাজীপুর মেট্রপলিটন কোনাবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাইদুর রহমান খান জানান, খবর পেয়ে আজ সোমবার বিকেল সাড়ে তিনটার সময় নিপা আক্তারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

সর্বশেষ