প্রশাসনের সরাসরি সহায়তায় ভোট কারচুপি হয়েছে: ইনু

কুষ্টিয়া-২ (ভেড়ামারা-মিরপুর) আসনে ১৪ দলীয় জোট মনোনীত নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করা জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাছে পরাজিত হয়েছেন। হারের পর প্রতিক্রিয়া ইনু বলেন, সারা দেশেই একটা বিরূপ পরিস্থিতির মধ্যেই সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রক্ষায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও শেষ পর্যন্ত একভাবে জনগনের অংশ গ্রহণসহ সাড়া পাওয়া গেছে, সেদিক থেকে মনে হয় নির্বাচনি কাজটা নির্বিঘ্নেই সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য সব জায়গায় কিভাবে নির্বাচন হয়েছে সেটা আমাকে দেখতে হবে।

সোমবার দুপুর ১২টায় ভেড়ামারা উপজেলার গোলাপনগর গ্রামের নিজ বাড়িতে স্থানীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়-কালে ইনু এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, কুষ্টিয়া-২ আসনে যেভাবে নির্বাচন হলো সেখানে আমি মনে করি পরিকল্পিত ভাবে ভোট কারচুপি হয়েছে। এখানে প্রশাসনের রহস্য জনক নিরবতা ও নিষ্কিয়তায় আমি ক্ষতিগ্রস্ত হইছি এবং পরাজিত হইছি। এলাকায় সবাই জানেন কালো টাকার ছড়াছড়ি, মাস্তানি পেশিশক্তির প্রভাব থাকলেও প্রশাসনের নিরতার কারণেই আমি পরাজিত হয়েছি। আমার নির্বাচনি এলাকায় আমি আবারও বলব প্রশাসনের পরিকল্পিত নিষ্ক্রিয়তা পরাজয় নিশ্চিত করতে ভূমিকা রেখেছে। কেন প্রশাসনের এই উদ্দেশ্যমূলক নিষ্ক্রিয়তা, সেটা পরে ভেবে দেখব আমি’।

এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘কেবল নির্বাচন শেষ হলো, এমুহূর্তে রাজনৈতিক পরিকল্পনা নিয়ে আমরা ভাবিনি, এমুহূর্তে দল বসবো, তারপর পরবর্তী রাজনৈতিক পরিকল্পনা আমরা গ্রহণ করব। তবে ১৪ দলীয় জোটের যে নির্বাচনি বিজয় এবং তার ভিত্তিতে জোট নেত্রী সেখ হাসিনা নতুন ভাবে সরকার গঠন করবেন, সেটা রাজনৈতিক ধারাবাহিকতার জন্যে একটা গুরুত্বপূর্ণ সাফল্য। আমি সেটাকে স্বাগত জানাচ্ছি’।

সূত্র: যুগান্তর

সর্বশেষ