গ্যাসের আমদানি ও নিজস্ব জোগান বাড়ছে
চলমান গ্যাসসংকট সাময়িক বলে উল্লেখ করেছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান। তিনি বলেন, ‘গ্যাসের বর্তমান সংকট সাময়িক। পরিস্থিতি সামাল দিতে আরো এলএনজি কেনা হয়েছে। এ ছাড়া অভ্যন্তরীণ উৎস থেকে জোগান বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

গতকাল সোমবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ভবনে দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলার সমন্বিত উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণে সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।ডলার সংকট নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সালমান ফজলুর রহমান বলেন, ‘শিগগির দেশে ডলার সংকট কেটে যাবে। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বাড়াতে রপ্তানি ও রেমিট্যান্স বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর ফলে ডলার সংকট কেটে যাবে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এই মুহূর্তে দুটি জিনিস চাপ কমাতে সহযোগিতা করতে পারে, একটি হলো রেমিট্যান্স বাড়াতে হবে এবং আরেকটি হচ্ছে রপ্তানি বাড়াতে হবে। রপ্তানি বাড়ানোর জন্য অনেক নতুন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। সম্প্রতি আমদানি অনেকটা কমে গেছে। তার পরও ডলারের ওপর চাপ থাকছে। মূল্যস্ফীতির ঊর্ধ্বগতি নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা বলেন, ‘মূল্যস্ফীতি বাড়ার অন্যতম কারণ আন্তর্জাতিক বাজারে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি। এ ছাড়া দেশের বাজারে কিছু পণ্যের দাম অযৌক্তিভাবে বেড়েছে। এসব ক্ষেত্রে সরকারের এরই মধ্যে ব্যবস্থা নেওয়ার দাম কিছুটা কমেছে।

সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন

সর্বশেষ