রাতে টানা বৃষ্টির আভাস, জেঁকে বসতে পারে শীত
ঘূর্ণিঝড় মিগজাউমের কারণে অসময়ে হচ্ছে বৃষ্টি। ভারতে আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড়টির কারণে সৃষ্ট মেঘমালা থেকেই এই বৃষ্টিপাত হচ্ছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। আগামীকাল শুক্রবারও দেশের কোথাও কোথাও এ বৃষ্টির ধারা অব্যাহত থাকতে পারে। তবে আজ শুক্রবার একটানা বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় মিগজাউম গত মঙ্গলবার ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ উপকূলে আঘাত হেনেছে। এর প্রভাবে গতকাল বুধবার রাত থেকেই দেশের বিভিন্ন এলাকায় একটানা বৃষ্টি হচ্ছে।
আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড়টি লঘুচাপে পরিণত হয়ে বর্তমানে গুরুত্বহীন হয়ে পড়েছে। আবার বৃষ্টি হওয়ায় আকাশে জড়ো হওয়া মেঘও কেটে যাচ্ছে।বাতাসের জলীয় বাষ্প কমে গেলে এবং আকাশ মেঘমুক্ত হলে অনেকটাই কমে যাবে তাপমাত্রা। ফলে আগামী দুই-তিন দিনের মধ্যেই জেঁকে বসতে পারে শীত।ডিসেম্বর মাস বিবেচনায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণকে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি বলছেন আবহাওয়াবিদরা। আবহাওয়া অফিস সূত্র জানিয়েছে, আজ সকাল ৬টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত ৯ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ বৃষ্টি হয়েছে যশোরে, ৪৪ মিলিমিটার।
ঢাকায় এ সময় ১৮ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে।আবহাওয়াবিদরা বলছেন, আজ শুক্রবার রাতে একটানা বৃষ্টি থাকতে পারে। আগামীকাল শুক্রবারই বৃষ্টি অনেকটা কমে যেতে পারে। পরদিন শনিবার থেকে পুরোপুরি শুষ্ক আবহাওয়া বিরাজ করতে পারে দেশে।আবহাওয়া অধিদপ্তরের সহকারী আবহাওয়াবিদ কাজী জেবুন্নেছা আজ সন্ধ্যায় কালের কণ্ঠকে বলেন, আজ রাত পর্যন্ত একটানা বৃষ্টির এই ধারা অব্যাহত থাকতে পারে।আগামীকাল থেকে বৃষ্টি অনেকটাই কমে যাবে। হয়তো দুই-এক জায়গায় হালকা গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হতে পারে।
কাজী জেবুন্নেছা আরো বলেন, বৃষ্টি হওয়ায় এখন ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব অবনেকটাই কেটে যাবে। ফলে আগামীকাল থেকেই রাতের তাপমাত্রা কমা শুরু করবে। শীতের তীব্রতাও বাড়বে। আগামীকাল রাতের তাপমাত্রা কমতে পারে ১ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।সূত্র: যুগান্তর

সর্বশেষ