PES 2013 Download for Windows 7/8/10/11 - PES2013

Download PES 2013 for Windows 7/8/10/11 and dive into the exciting world of soccer with PES2013. Experience realistic gameplay and enhanced football simulation.
Get it now for FREE !

Pes 2013 Download
সপ্তাহে দুই দিন বসছে মহাসড়কের মাঝখানে সুপারির হাট, ঝুঁকিতে চলছে বেচাকেনা

এস এম সাইফুল ইসলাম কবির:

বাগেরহাটে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় মহাসড়কের মাঝখানে সপ্তাহে দুই দিন বসছে সুপারির হাট। সদর উপজেলার দরগার মোড় এলাকায় খুলনা-বাগেরহাট মহাসড়কের পাশে এবং মাঝখানের সড়ক বিভাজনে প্রতি মঙ্গলবার ওশুক্রবার বসে এ হাট। জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা অর্ধশতাধিক ব্যবসায়ী সুপারি বেচাকেনা করতে আসেন এখানে।

সুপারির হাটের জন্য নির্ধারিত স্থান না থাকায় ব্যবসায়ীরা ঝুঁকি নিয়ে এখানে সুপারি বেচাকেনা করেন। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে মহাসড়কে চলাচলরত দ্রুতগতির যানবাহন, ক্রেতা ও বিক্রেতাদের।

সরেজমিন দরগা হাটে গিয়ে মঙ্গলবার (৩১ অক্টোবর ২০২৩)দেখা যায়, জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে উৎপাদিত সুপারি ভ্যান, নসিমন ও অটোরিকশায় করে সুপারি বিক্রি করতে এসেছেন বিক্রেতারা। এ সময় তারা মহাসড়কের দু’পাশসহ মাঝখানের সড়ক বিভাজনে ভ্রাম্যমাণ দোকান বসিয়ে সুপারি বেচাকেনা করছেন। দোকানগুলোর দুপাশ দিয়েই চলাচল করছে বাস ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহন। কেউ কেউ মহাসড়কের উপর দাঁড়িয়ে বস্তায় সুপারি ভরছেন। ক্রেতারাও ঝুঁকি নিয়ে মহাসড়কের উপর দাঁড়িয়ে সুপারি দেখছেন ও ক্রয় করে নিয়ে যাচ্ছেন।

অপরদিকে সুপারি পরিবহনের জন্য থামিয়ে রাখা যানবাহনের জন্য দেখা দিয়েছে যানজট। ব্যবসায়ীরা বলছেন মহাসড়কের দক্ষিণ পাশে এই হাটে সবজি ও মাছ বিক্রয়ের জন্য নির্ধারিত স্থান থাকলেও সুপারি ব্যবসায়ীদের জন্য নির্ধারিত কোনো স্থান নেই। তাই বাধ্য হয়ে তারা ঝুঁকি নিয়ে সড়কের মাঝখানে বসে সুপারি বিক্রি করছেন। মাঝেমধ্যে দুর্ঘটনার স্বীকারও হচ্ছেন তারা।

কচুয়ার তালেশ্বর থেকে সুপারি বিক্রি করতে আসা পুলক সাহা বলেন, এই হাটে সুপারি ক্রয়-বিক্রয় করতে কোনো খাজনা দিতে হয় না, তাই এখানে সুপারি বিক্রি করলে বেশি লাভ হয়। যখন সুপারির সিজন থাকে তখন প্রতি সপ্তাহে প্রায় ৫০-৬০ জন ব্যবসায়ী রাস্তার পাশে এবং সড়ক বিভাজনে বসে সুপারি বেচাকেনার কাজ করেন। একটু লাভের আশায় ঝুঁকি নিয়ে রাস্তার উপর বসে বেচাকেনা করছি। সব সময় ভয়ে থাকি কখন যেন গাড়ি উঠে যায় গায়ের উপর।

সুপারি বিক্রি করতে আসা অপর বিক্রেতা হাবিব বলেন, বিভিন্ন বাগান থেকে উৎপাদিত সুপারি সংগ্রহ করে এখানে বিক্রি করতে এসেছি। এই হাটে সুপারির দাম মোটামুটি ভালো পাওয়া যায় এবং মহাসড়কের উপর হওয়াতে পরিবহন ব্যবস্থা ভালো থাকায় বেশি ক্রেতা এখানে আসে। কিন্তু হাটে মাছ তরকারি ও অন্যান্য বিক্রেতার জন্য নির্ধারিত স্থান থাকলেও সুপারি বিক্রেতাদের জন্য নির্ধারিত কোন স্থান নেই তাই বাধ্য হয়ে রাস্তার মাঝখানে সড়ক বিভাজনের ফাঁকা জায়গায় বসে সুপারি বিক্রি করছি। রাস্তার মাঝখানে সুপারি বেচাকেনা করতে বেশ ভোগান্তী পোহাতে হচ্ছে। যখন ক্রেতারা সুপারি কিনতে আসে তখন তারা সড়কের উপরে দাঁড়িয়ে সুপারি দেখেন। এসময় এখান থেকে বাস ট্রাক চলাচল করতেও অসুবিধা হয়। যদি সুপারি বিক্রেতাদের জন্য নির্ধারিত স্থান করে দেওয়া হয়, তাহলে ক্রেতা বিক্রেতাদের এই ভোগান্তি কমবে এবং মহাসড়কের উপর থেকে স্বাচ্ছন্দ্যে যানবাহন যাতায়াত করতে পারবে। আমরাও নিশ্চিন্তে বেচাকেনা করতে পাররো।

সুপারি কিনতে আসা শেখ আকাশ রহমান বলেন, শহর থেকে এখানে খুব সহজে আসা যায় তাই দোকানের জন্য সুপারি কিনতে এসেছি। সপ্তাহে দুদিন এখানে সুপারি কিনতে আসি। কিন্তু সুপারি কেনার সময় মহাসড়কের মাঝখানে দাঁড়িয়ে সুপারি পছন্দ করে কিনতে হয় এ সময় দুর্ঘটনার বেশ ঝুঁকি থাকে। হাটের জন্য যদি নির্ধারিত স্থান ঠিক করে দেওয়া হয় তাহলে আমাদের এই ভোগান্তি কমবে।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মোহা. খালিদ হোসেন বলেন, মহাসড়কের উপর ব্যবসায়ীদের দোকান নিয়ে বসার ফলে জনভোগান্তি সৃষ্টি হচ্ছে। এবিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে সমাধান করা হবে।

সর্বশেষ