শিক্ষার্থীদের খাদ্য ও পুষ্টি সম্পর্কে সচেতন হতে যে পরামর্শ দিলেন ইবি ভিসি

শিক্ষার্থীদের খাদ্য ও পুষ্টি সম্পর্কে সচেতন হতে যে পরামর্শ দিলেন ইবি ভিসি

ইবি প্রতিনিধি:

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের ২৫ বছর পূর্তিতে রজতজয়ন্তী উদযাপন ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। দিনটিকে ঘিরে শনিবার (১৪ অক্টোবর) ক্যাম্পাসে নানা কর্মসূচি করেছে বিভাগটি। বিভাগের ১৯৯৮-৯৯ শিক্ষাবর্ষ থেকে ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের সহস্রাধিক নবীন ও প্রবীণ শিক্ষার্থীরা কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন।

কর্মসূচির শুরুতে সকাল সাড়ে ১০ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ভবন থেকে আনন্দ র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে স্মৃতিচারণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভিসি অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, “বিভাগের পঁচিশ বছর পূর্ণ হওয়াকে কেন্দ্র করে আজকের এই আয়োজন। পঁচিশ বছর সময় টা বেশি নয় আবার কমও নয়। এই সময়ের মাধ্যমে একটা জাতিকে পরিবর্তন করা সম্ভব। আমাদের দেশকে স্বাধীন করার পিছনে অন্যতম কারণ ছিল খাদ্য ও বস্ত্রের অভাব।”

ভিসি আরো বলেন, “প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগনকে আহবান করছেন; আমরা কারো উপর নির্ভরশীল হতে চাই না। নিজ দেশের আঙ্গিনায় নিজেদের চাহিদা পূরনের জন্য উৎপাদন করব। মানুষের মধ্যে খাদ্য সচেতনতা বৃদ্ধি করে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব। এছাড়াও ছাত্রদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য প্রতি মাসে খাদ্য সচেতনতা ক্যাম্পেইন করা দরকার। যাতে শিক্ষার্থীরা নিজেদের খাদ্য এবং পুষ্টি সম্পর্কে সচেতন হতে পারে।”

ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. শেখ মোহাম্মদ আব্দুর রউফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া ও জীব বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. রেজওয়ানুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ‘রজতজয়ন্তী ও অ্যালামনাই পুনর্মিলন’ অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. বাবলী সাবিনা আজহার। এসময় প্রক্টর অধ্যাপক ড শাহাদৎ হোসেন আজাদ, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. জাহাঙ্গীর হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. তপন কুমার জোদ্দার, পরিবহন প্রশাসন অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এইচ এম আলী হাসানসহ বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি যৌথভাবে সঞ্চালনা করেন বিভাগের অধ্যাপক ড. শফিকুল ইসলাম ও ড. শাম্মী আকতার।

আলোচনা শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

সর্বশেষ