সাফ চ্যাম্পিয়নশীপে বাড়ছে অতিথি দলের সংখ্যা

আকাশ দাশ সৈকতঃ

আগামী জুন মাস থেকে ভারতের বেঙ্গালুরুতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সাফ চ্যাম্পিয়নশীপের পরবর্তী আসরে দক্ষিণ এশিয়ার দল শ্রীলঙ্কা অংশ না নিলে অতিথি দলের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে সাফের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক হেলাল।

ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ের তলানির দিকে থাকা বাংলাদেশ দলের সময়টা যাচ্ছে না খুব একটা ভালো। ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত অপেশাদার সিশেলসের বিপক্ষে দুই ম্যাচের সিরিজ ড্র করেছে ১-১ ব্যবধানে। দলের এমন পারফরম্যান্সের মধ্যে আগামী জুনে ভারতে অনুষ্ঠিত হবে সাফ চ্যাম্পিয়নশীপের পরবর্তী আসর। তবে এর মধ্যে সাফ চ্যাম্পিয়নশীপ নিয়ে এলো নতুন খবর। এশিয়ান দেশ শ্রীলঙ্কা টুর্নামেন্টে অংশ না নিলে বাড়তে পারে অতিথি দলের শঙ্কা। ফলে অসন্ন আসরে বেশ পড় পরিক্ষায় পড়তে হবে জামাল-তপুদের।

শুক্রবার অনলাইন প্লাটফর্মে সাউথ এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশনের (সাফ) নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কল্যান চৌবের দেওয়া অতিথি দল খেলানোর প্রস্তাবের বিষয়ে আলোচনা হয়।

এরপর সভা শেষে সাফের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক হেলাল গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘এবার চ্যাম্পিয়নশিপ আমরা ৮ দল নিয়ে আয়োজন করবো। শ্রীলঙ্কা অংশ নিতে পারবে কিনা, তা এখনও নিশ্চিত নয়। ২০ এপ্রিলের মধ্যে শ্রীলঙ্কার বিষয়টি নিশ্চিত না হলে আমরা দুটি অতিথি দলকে অন্তর্ভুক্ত করবো। যার একটি হবে আশিয়ান অঞ্চলের দেশ।’

আশিয়ান অঞ্চলের কোন কোন দেশ সাফে অংশ নিবে এই বিষয়ে এখনো কিছু জানানো না হলেও আফগানিস্তান, তাজিকিস্তান, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম-এসব দেশের মধ্যেই হতে পারে একটি দল। আরেকটি হবে অন্য অঞ্চলের এমটাই জানান আনোয়ারুল হক হেলাল।

উল্লেখ্য ২০০৩ সালে ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত আসরে প্রথমবারের মতো সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতেছিল বাংলাদেশ। এরপর ২০০৫ সালে করাচিতে অনুষ্ঠিত পরের আসরেও ফাইনালে খেলেছিল তারা। আর সর্বশেষ ২০০৯ সালে ঢাকায় সেমিফাইনালে খেলেছে বাংলাদেশ।

সর্বশেষ