ক্লুলেস হত্যা ও গুম-ছিনতাইয়ের একাধিক ঘটনায় জড়িত সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্য গ্রেফতার-০৬

ক্লুলেস হত্যা ও গুম-ছিনতাইয়ের একাধিক ঘটনায় জড়িত সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্য গ্রেফতার-০৬

হাসানুজ্জামান সুমন,বিশেষ-প্রতিনিধি: আজ১৪ জানুয়ারি ২০২৩ সকাল ১১ঃ৩০ ঘটিকা ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে ব্রিফ করেন: মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বিপিএম-বার, পিপিএম বার অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি) জানান, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা উত্তরা বিভাগের বিমানবন্দর জোনালটিম গত ১৩.০১.২০২৩ খ্রিঃ তারিখ হতে গত ১৪.০১.২০২৩ তারিখ পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে মৌলভীবাজার জেলার রাজনগর থানা এলাকা সহ ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় ধারাবাহিকভাবে অভিযান পরিচালনা করে দক্ষিনখান থানা এলাকায় লোমহর্ষক ক্লুলেস হত্যা মামলার ঘটনায় জড়িত এবং অটোরিক্সা ছিনতাই,হত্যা,গুম চক্রের ০৬ জন সদস্য গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামীঃ ১। মোঃ খালেদ খান শুভ (২০), ২। মোঃ টিপু (৩১), ৩। মোঃ হাসানুল ইসলাম @ হাসান (২০), ৪। মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন (৪০), ৫। আব্দুল মজিদ (২৯), ৬। মোঃ সুমন (৩৫)। গ্রেফতারের সময় তাদের হেফাজত হতে ১। একটি ঝণগচঐঙঘণ বাটন মোবাইল, ২। চাকু (সুইস গিয়ার), ৩। অটোরিক্সা ও ৪। পাথর উদ্ধার করা হয়। উল্লেখ্য, ভিকটিম মোঃ মোস্তফা গত ০৭.১২.২০২২ তারিখ রাতে ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সা চালানোর উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হয়ে যায়। পরবর্তীতে কোথাও ভিকটিমের সন্ধান না পাওয়ায় ভিকটিমের মা দক্ষিণখান থানার নিখোঁজ জিডি নং- ৪৫৯, তারিখ ১২.১২.২০২২ সাধারণ ডায়েরিভুক্ত করেন। ভিকটিমের মা লোক মারফত জানতে পারেন ১৭.১২.২০২২ খ্রি: দক্ষিণখান থানাধীন আসিয়ান সিটির ২৩ নং রোডের পশ্চিম পার্শ্বে আসিয়ান সিটির নিজস্ব ফাঁকা প্লটে একটি অজ্ঞাতনামা লাশ পড়ে আছে। ভিকটিমের মা ও বাবা উক্ত স্থানে পৌছে উক্ত অজ্ঞাতনামা লাশটি তার ছেলে মোস্তফা (৩৫) এর বলে সনাক্ত করেন।

ভিকটিমের মা শামছুন্নাহার (৬৯) বাদী হয়ে দক্ষিনখান থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি ডিবি পুলিশ কর্তৃক তদন্তকালে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে মামলার ঘটনার সাথে জড়িত আসামীদের সনাক্ত করা হয়। গোয়েন্দা উত্তরা বিভাগের বিমানবন্দর জোনাল টিম মৌলভীবাজার জেলার, রাজনগর থানাধীন, ইন্দানগর সাকিনস্থ মিনা বেগমের বসত বাড়ী হইতে আসামী মোঃ খালেদ খান শুভ কে গ্রেফতার করা হয়। আসামীর দেখানো ও সনাক্ত মতে তার হেফাজত হতে ভিকটিম এর ব্যবহৃত একটি ঝণগচঐঙঘণ বাটন মোবাইলটি উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মোঃ খালেদ খান শুভ নিকট হতে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে দক্ষিনখান থানা এলাকা হতে হত্যার ঘটনায় সরাসরি জড়িত মোঃ টিপু এবং মোঃ হাসানুল ইসলাম ও হাসানকে গ্রেফতার করা হয় । পরবর্তীতে গ্রেফতারকৃত মাঃ টিপু এবং মোঃ হাসানুল ইসলাম ও হাসান দ্বয়কে জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনায় জড়িত মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন ও আব্দুল মজিদদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন ও আব্দুল মজিদ দের হেফাজত হতে অত্র মামলার ঘটনায় ভিকটিমের অটোরিক্সাটি উদ্ধার করা হয়। অন্য একটি হত্যাকান্ডের ঘটনায় গুম, ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত একটি চাকু (সুইস গিয়ার) উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে, গ্রেফতারকৃতরা জানায় যে, গত ইং ২৫.১২.২০২২ তারিখ, সন্ধ্যার পর মোঃ টিপু, মোঃ হাসানুল ইসলাম ও হাসান, মোঃ শুভ’রা যাত্রী সেজে ব্যাটারীচালিত অটোরিক্সা চালককে গাজীপুর জেলার কালিগঞ্জ থানাধীন, পূর্বাচলের ২৫নং সেক্টরের নির্জন স্থানে নিয়ে মোঃ শুভ’র ক্রয়কৃত ধারালো ছুরি দ্বারা আঘাত করে অপর একটি অটো রিক্সার চালককে হত্যা করে তার লাশ রোডের পাশে ড্রেনে ফেলে অটোরিক্সা নিয়ে পালিয়ে যায়। এই সংক্রান্তে কালিগঞ্জ থানায় একটি মামলা রুজু হয়।

ঢাকা মহানগরীয় থানা ও ঢাকার আশপাশের জেলার বিভিন্ন থানায় হত্যা, গুম ও ছিনতাই ঘটনায় আরো মামলা রয়েছে। ধৃত আসামীরা এসকল ঘটনার সাথে জড়িত কিনা, তা ডিএমপি ডিবি পুলিশ খতিয়ে দেখছে। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে দক্ষিণখান থানায় একটি হত্যা মামলা রুজু করা হয়েছে। গোয়েন্দা উত্তরা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার জনাব মোঃ আকরামুল হোসেন এর নেতৃত্বে উক্ত অভিযান পরিচালিত হয়।

সর্বশেষ