টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমার ময়দান সম্পূর্ণ প্রস্তুত

মেহেদী হাসান শাহীন, স্টাফ রিপোর্টারঃ

বিশ্ব মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কারণে দীর্ঘ তিন বছর পর গাজীপুর মহানগরের টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামীকাল শুক্রবার (১৩ জানুয়ারি) বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। এরই মধ্যে শেষ হয়েছে প্রস্তুতিমূলক কাজ। মুসল্লিদের যাতায়াত ও সুষ্ঠুভাবে যানবাহন চলাচলে নেওয়া হয়েছে বিশেষ নিরাপত্তাব্যবস্থা।

এরই মধ্যে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে মুসল্লিরা ইজতেমা ময়দানে আসতে শুরু করেছেন। কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে ইজতেমার ময়দান। সময় যত গড়াতে থাকে, ততই মুসল্লির আগমন বাড়তে থাকে। তবে এক দিন আগেই বুধবার সন্ধ্যায় ইজতেমা ময়দানে মুসল্লির ঢল নামলে ময়দান কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়।

বিশ্ব ইজতেমার মুসল্লিদের সার্বক্ষণিক চিকিৎসায় নানা উদ্যোগ নিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। ইতোমধ্যেই ইজতেমা চলাকালীন গাজীপুরে চিকিৎসক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীর ছুটি বাতিল করা হয়েছে। ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের ভোগান্তি কমাতে যুক্ত করা হয়েছে পাঁচ জোড়া বিশেষ ট্রেন।

বিশ্ব ইজতেমা আয়োজক কমিটির শীর্ষ মুরব্বি ডা. খান মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন বলেন, শুক্রবার শুরু হয়ে রবিবার (১৫ জানুয়ারি) আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে প্রথম পর্বের (জুবায়েরপন্থি) ইজতেমার সমাপ্তি ঘটবে। মাঝে ৪ দিন বিরতি দিয়ে ২০ জানুয়ারি দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের অনুসারী (সাদপন্থি) মুসল্লিরা ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে অংশ নেবেন। ২২ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে এবারের ইজতেমার সমাপ্তি ঘটবে

ইজতেমায় নিয়োজিত পুলিশ প্রশাসন জানায়, মুসল্লিদের নির্বিঘ্নে যাতায়াত ও সুষ্ঠু যানবাহন চলাচলে রবিবার (১৫ জানুয়ারি) সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা এবং ২২ জানুয়ারি সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে বিমান আরোহী বহনকারী যানবাহন, ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ও অ্যাম্বুলেন্স চলতে পারবে। এ সময়ে ঘোড়াশাল কালীগঞ্জ-পুবাইল হয়ে আসা যানবাহন টঙ্গী রেলওয়ে স্টেশনের পূর্ব মরকুন (কে-২ ফ্যাক্টরি) পর্যন্ত চলাচল করতে পারবে।

সর্বশেষ