সরকার যত বেশি অত্যাচার করবে ততবেশি মানুষ ফুঁসে উঠবে: মির্জা ফখরুল

সরকার যত বেশি অত্যাচার করবে ততবেশি মানুষ ফুঁসে উঠবে: মির্জা ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার যত বেশি অত্যাচার করবে ততবেশি মানুষ ফুঁসে উঠবে। পিছু হটবার পথ নেই। আন্দোলনের মাধ্যমেই আমরা কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাবো। তাই আন্দোলন আরও তীব্র করতে হবে।

তিনি বলেন, মহান আল্লাহ তায়ালার ইচ্ছা ও আপনাদের আন্দোলের মাধ্যমে আমরা মাত্র দুইজন মুক্তি পেয়েছি। আরও সবাই এখনো কারাগারে। শুধু বন্দি নয় তারা মানবেতর জীবন-যাপন করছে। একটা সেলের মধ্য ৫-৭ জনকে গাদাগাদি করে রাখা হচ্ছে।

সোমবার (০৯ জানুয়ারি) রাতে বিএনপির নয়াপল্টন কার্যালয়ের সামনে উপস্থিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব সন্ধ্যা ৬টায় কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে সরাসরি নয়াপল্টন দলীয় কার্যালয়ে আসেন। এসময় বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী মির্জা ফখরুলকে ফুলের মালা দিয়ে অভিনন্দন জানান। প্রিয় নেতার মুক্তিতে বিভিন্ন শ্লোগান দেন দলটির নেতাকর্মীরা।

ফখরুল বনেন, ক্ষমতাসীনরা গ্রেফতার করে ভোটের অধিকারের আন্দোলন বন্ধ করে দিতে চেয়েছিল। কিন্তু এতে আন্দোলন আরও বেগবান হয়েছে। সারাদেশ আন্দোলনে প্রকম্পিত হচ্ছে। এর মাধ্যমে দেশকে মুক্ত করতে হবে। আসুন এই শপথ নিয়ে নতুন অঙ্গীকার করি। বিজয় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলতেই থাকবে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, তারা ভেবেছিল আমাদের অফিসে দিনে দুপুরে ডাকাতের মতো হামলা করে আমাদের নেতাকে হত্যা করে প্রায় ৪৩৬ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করে নিয়ে এই আন্দোলনকে বন্ধ করে দেবে। এর আগে আরও ১০ জন নেতাকে হত্যা করেছে। আমাদের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে নিয়ে তারা গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলন, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন, ৩৫ লাখ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা তা প্রত্যাহার করার আন্দোলন; সর্বোপরি ভোটের অধিকারের যে আন্দোলন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের যে আন্দোলন তাকে তারা বন্ধ করে দেবে।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন— ভাইস চেয়ারম্যান এ জেড এম জাহিদ হোসেন, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমানুল্লাহ আমান, দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক নবী উল্লাহ নবী, দলের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত দফতর সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, ঢাকা মহানগর উত্তরের সদস্য সচিব আমিনুল হক, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু, যুবদল সাধারণ সম্পাদক মোনায়েম মুন্না প্রমুখ।

সর্বশেষ