মিরপুর ও যাত্রাবাড়ী এলাকায় পৃথক ঘটনায় প্রাণ গেল দুই নারীর

রাজধানীর মিরপুর ও যাত্রাবাড়ী এলাকায় পৃথক ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন দুই নারী। নিহতদের মধ্যে আঁখি আক্তার নামের একজনের নাম-পরিচয় পাওয়া গেলেও অন্যজনের নাম পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

পুলিশ জানায়, নিহত আঁখি আক্তারের গ্রামের বাড়ি লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা থানায়। তারা মিরপুরে থাকতেন। রোববার (৮ জানুয়ারি) পল্লবীর কালশীর বাউনিয়া বাঁধ এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

পল্লবী থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) পার্থ মল্লিক বলেন, আমরা খবর পেয়ে মিরপুরের কালশী বাউনিয়া বাঁধ এলাকার একটি বাসা থেকে আঁখি আক্তারের মরদেহ উদ্ধার করি। তার মরদেহ ফ্যানের সঙ্গে ওড়না দিয়ে গলায় পেঁচানো অবস্থায় ছিল। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহতের বাবা আশরাফের বরাতে এসআই জানান, ওই নারীর স্বামী সজীব একজন গাড়িচালক। পারিবারিক কলহের জের ধরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন আঁখি।

এর আগে শনিবার রাতে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী চৌরাস্তায় সড়ক দুর্ঘটনায় অজ্ঞাত পরিচয় এক নারী নিহত হয়েছেন। তার বয়স আনুমানিক ৪০ বছর। আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রোববার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

যাত্রাবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. জুয়েল হোসেন খান সুরতহাল প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন, শনিবার দিবাগত রাতে যাত্রাবাড়ী চৌরাস্তায় হানিফ ফ্লাইওভারের নিচে কোনো যানবাহন ওই নারীকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

তিনি আরও উল্লেখ করেন, ওই নারী ভবঘুরে ও মানসিক ভারসাম্যহীন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। তার পরনে ছিল প্রিন্টের কাপড় ও সোয়েটার। ঘাতক গাড়িটি শনাক্তের চেষ্টা চলছে। নিহতের নাম-ঠিকানা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।

সর্বশেষ