জবির আইকিউএসি’র পরিচালক আইন-উল হুদা, অতিরিক্ত পরিচালক সরোয়ার-রফিকুল

মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এ্যাসুরেন্স সেল-এর (আইকিউএসি) দায়িত্বে তিন জন নতুন শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এদের মধ্যে একজন পরিচালক ও দুইজন অতিরিক্ত পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। তিন বছরের জন্য পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. আইন-উল হুদা-কে আইকিউএসি’র পরিচালক ও গণিত বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. সরোয়ার আলম এবং প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল ইসলামকে অতিরিক্ত পরিচালক হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান এসব তথ্য জানিয়েছেন। এ সংক্রান্ত পৃথক দুইটি অফিস আদেশও প্রকাশিত হয়েছে। অফিস আদেশে বলা হয়েছে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. আইন-উল হুদা-কে ০৩ বছরের জন্য ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এ্যাসুরেন্স সেল এর পরিচালক হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছে। এ আদেশ পহেলা জানুয়ারি তারিখ হতে কার্যকর হবে।

তিনি বিধি মোতাবেক ভাতা ও অন্যান্য সুবিধাদি প্রাপ্য হবেন। এছাড়াও অপর একটি অফিস আদেশে বলা হয়েছে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এ্যাসুরেন্স সেল-এর অতিরিক্ত পরিচালক হিসেবে দুইজন শিক্ষক-কে ৩ বছরের জন্য নিযুক্ত করা হয়েছে। এঁরা হলেন গণিত বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. সরোয়ার আলম এবং প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল ইসলাম। এ আদেশ চলতি বছরের পহেলা জানুয়ারি থেকে কার্যকর হচ্ছে। তাঁরা বিধি মোতাবেক ভাতা ও অন্যান্য সুবিধাদি প্রাপ্য হবেন। অধ্যাপক ড. মো. সরোয়ার আলম জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি (জবিশিস) কার্যনির্বাহী পরিষদ ২০২৩-এ সহসভাপতি ও ড. মো. রফিকুল ইসলাম সদস্য হিসেবে রয়েছেন। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৬ সালের ৭ মার্চ একাডেমিক ভবনের নিচ তলায় বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) হেকেপ প্রজেক্টের ‘ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এ্যাসুরেন্স সেল (আইকিউএসি)’ অফিস কক্ষ উদ্বোধন করা হয়ে। এর আগে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাস্যুরেন্স সেলে (আইকিউএসি) পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. কামরুল আলম খান।

শুরু থেকেই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেলসের পরিচালক হিসেবে ছিলেন তিনি। সম্প্রতি তিনি জামালপুরের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। এছাড়াও অতিরিক্ত পরিচালক হিসেবে ছিলেন পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. আইন-উল হুদা ও সমাজকর্ম বিভাগের অধ্যাপক ড. রাজিনা সুলতানা। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং কর্মকর্তাদের পেশাগত দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে বুনিয়াদি প্রশিক্ষণসহ দেশে বিদেশে বিভিন্ন ধরনের প্রশিক্ষণ, সেমিনার, ওয়ার্কশপ, সিম্পোজিয়াম ইত্যাদির আয়োজন করে আসছে ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এ্যাসুরেন্স সেল (আইকিউএসি)। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের গুণগত মানসম্পন্ন প্রশাসনিক ও একাডেমিক কার্যক্রম নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে সার্বক্ষণিক কাজ করে যাচ্ছে আইকিউএসি। বিশ্ববিদ্যালয়ে মানসম্পন্ন শিক্ষা-সংস্কৃতির প্রসার ঘটানোই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেল-এর (আইকিউএসি) মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক এবং প্রশাসনিক উৎকর্ষ অর্জনের লক্ষ্যে সর্বোত্তম অনুশীলনের মাধ্যমে মান নিশ্চিত করাই আইকিউএসির ভিশন। এছাড়া আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত গুণমান নিশ্চিতকরণ প্রক্রিয়া অনুসরণপূর্বক শিক্ষার ক্ষেত্রে সুশাসন নিশ্চিত করা ও সর্বোত্তম ব্যবস্থা অনুশীলনের মাধ্যমে বিশ্বায়িত পরিবেশে উচ্চশিক্ষার অংশীজনদের নির্ভরতা অর্জন করাই আইকিউএসির মিশন। হেকেপ প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর ২০১৮ সাল থেকে ইউজিসির সঙ্গে সম্পাদিত পূর্বোক্ত চুক্তি ও নির্দেশনা মোতাবেক জবিতে আইকিউএসি তার স্বাভাবিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে নানা সীমাবদ্ধতার মাঝেও জবির আইকিউএসি বিশ্ববিদ্যালয়ের মান উন্নয়নে সর্বাত্মক কাজ করে যাচ্ছে। গত বছর আইকিউএসি বেশকিছু কর্মকান্ড সম্পন্ন করেছে। তন্মধ্যে শিক্ষকদের টিচিং-লার্নিং দক্ষতার বৃদ্ধির জন্য প্রশিক্ষণ আয়োজন করা হয়। কর্মকর্তাদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্যও ই-নথিবিষয়ক প্রশিক্ষণ সহ বিভিন্ন প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়েছে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ এ ব্যাপারে সর্বাত্মক সহযোগিতা করছেন।

সর্বশেষ