সিইও হিসেবে সাকিবকে আমন্ত্রণ জানাতে প্রস্তুত বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল

বিপিএল কর্তৃপক্ষের সমালোচনায় সাকিব

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) নিয়ে তারকা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের সমালোচনাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছে টুর্নামেন্টের গভর্নিং কাউন্সিল। তাদের দৃস্টিতে দেশের বড় এই টি-টোয়েন্টি ইভেন্টটি প্রচারে সাকিবের মন্তব্য ভালই হয়েছে।
বিপিএল শুরুর দুই দিন আগে কর্তৃপক্ষের সমালোচনা করে সাকিব বলেন, বিসিবির অনিচ্ছা-পরিকল্পনার অভাবের কারনে টুর্নামেন্টটি প্রচারনায় ব্যর্থ হয়েছে। এটিকে বিসিবির সাংগঠনিক ব্যর্থতা হিসেবে দেখেছেন এই অলরাউন্ডার।
শুধুমাত্র সমালোচনা করেই ক্ষান্ত হননি সাকিব। তিনি আরও জানান, শুরু থেকেই বিপিএল ব্যর্থ হয়েছে। প্রধান নির্বাহির দায়িত্ব পেলে পুরো বিপিএল বদলে দিবেন তিনি।
এমন সমালোচনার পর আলোচনা চলছে ক্রিকেট মহলে। কিন্তু বিপিএল যখন ধীর গতিতে এগিয়েছে, তখন সাকিবের সমালোচনাকে বিসিবির কাছে নেতিবাচক প্রচারনার মতো মনে হয়েছে। আলোচনা যেমন হোক, বিসিবি তা মেনে নিয়েছে। প্রধান নির্বাহি হিসেবে সাকিবকে স্বাগত জানিয়েছে টুর্নামেন্টের আয়োজক বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল।
আজ বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান শেখ সোহেল বলেন, ‘প্রথমত, আমি সাকিবকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। যদি বিপিএলের প্রধান নির্বাহি হতে চান তবে তাকে আমরা স্বাগত জানাই। নিজের আগ্রহ প্রকাশ করছেন এবং আমাদের কোন আপত্তি নেই॥’
অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, ‘এখনো সে খেলছে, এজন্য তাকে খেলোয়াড় হিসেবে বিবেচনা করা হবে এবং একজন খেলোয়াড় হিসেবে এখানে আসতে পারবেন না। সামনের বছর আসুক সে।’
বিসিবির সমালোচনা করে সাকিব বলেছিলেন, ‘প্রধান নির্বাহির দায়িত্ব পেলে সবকিছু ঠিক করতে বেশি সময় লাগবে না। আমি মনে করি সবকিছু ঠিক করতে এক থেকে দুই মাস সময় লাগবে। নতুন ড্রাফট হবে, বিপিএল হবে ফ্রি টাইমে, আধুনিক প্রযুক্তি থাকবে, সম্প্রচার ঠিক থাকবে। হোম এবং অ্যাওয়ে ভেন্যু থাকবে।’
সাকিব আরও বলেন, যেহেতু বাংলাদেশে ক্রিকেট জনপ্রিয় খেলা এবং এমনকি প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষও নিয়মিত ক্রিকেটের আপডেট চায় তাই বাণিজ্যিকভাবে বিপিএলকে সফল করা কঠিন কিছু নয়।
সাকিবের সমালোচনার জবাবে বিপিএল সচিব ও বিসিবি পরিচালক আইএইচ মল্লিক জানান, তারকা এ অলরাউন্ডার বাজার পরিস্থিতি যা ভাবছেন তা নয়।
তিনি বলেন, ‘ভারত বা অন্যান্য দেশের মতো বড় নয় আমাদের বাজার। আমরা আইপিএল বা পিএসএলের মতো ফ্র্যাঞ্চাইজি থেকে ফি বাবদ বড় অঙ্কের অর্থ নিতে পারি না। অর্থনৈতিক সঙ্কট ও বিভিন্ন সমস্যা মোকাবেলা করতে হয়েছে। এখনও দেশের অর্থনৈতিক সঙ্কট চলছে এবং এজন্য এটিকে আইপিএলের মতো বড় করা সম্ভব নয়।’
মল্লিক আরও বলেন, ‘বিপিএল হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভিত্তিতে পরিচালানা সম্ভব নয় কারণ কুমিল্লা, রংপুরের মত বেশিরভাগ শহরে আমাদের বিমানবন্দর এবং হোটেল সুবিধা নেই। তবে সংস্কার করা হলে আমরা খুলনাকে অন্য ভেন্যু হিসেবে বিবেচনা করবো।’
সাকিব আরও বলেছিলেন, ‘বিপিএলের চেয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) মান অনেক ভালো। অন্তত আয়োজকরা জানেন কখন, কি করতে হবে।’
এ ব্যাপারে মল্লিক বলেন, ‘আমি দেখছি সাকিব ডিপিএলে অনেক ম্যাচে খেলেনি। কিন্তু কখনোই বিপিএল মিস করেন না। আমি যদি তাকে প্রশ্ন করি, সে ডিপিএলে অনেক খেলাই খেলেনি, তাহলে সে কিভাবে বলতে পারে ডিপিএলের চেয়ে বিপিএল খারাপ।’
তবে সাকিবের সমালোচনাকে ইতিবাচক দৃষ্টিতেও দেখছেন মল্লিক। তিনি বলেন, ‘বিপিএল নিয়ে সাকিব এত কথা না বললে কি এত প্রচার হতো? ভালো, যে কোন ইতিবাচক বা নেতিবাচক আলোচনা ভালো।’

সর্বশেষ