আগৈলঝাড়ায় অফিসের সহকারী সিদ্দিকুর রহমানের বিরুদ্ধে উৎকোচ গ্রহনের অভিযোগ

আগৈলঝাড়ায় অফিসের সহকারী সিদ্দিকুর রহমানের বিরুদ্ধে উৎকোচ গ্রহনের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টারঃ-
বরিশালের আগৈলঝাড়ায় গ্রাম পুলিশ(মহল্লাদার)’র সদস্যদের বেতনের টাকা থেকে উৎকোচ আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে উপজেলা নির্বাহী অফিসের সার্টিফিকেট সহকারী সিদ্দিকুর রহমানের বিরুদ্ধে। এঘটনায় গ্রাম পুলিশ সদস্যদের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।
নাম না প্রকাশের শর্তে একাধিক গ্রাম পুলিশ সদস্য জানান, সম্প্রতি উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের ১৬জন গ্রাম পুলিশ(মহল্লাদার) ২০২২ সালের ১৩ অক্টোবর নিয়োগ দেওয়া হয়। নিয়োগের পরে গ্রাম পুলিশ সদস্যরা তাদের প্রথম দুই মাস ১০দিনের বেতনের ৭হাজার ৫শত ৪৮ টাকা বরাদ্দ পায়। বুধবার বেতনের টাকা উত্তোলন করতে গেলে সিদ্দিকুর রহমান ওই টাকা থেকে প্রতিজনের কাছ থেকে ১হাজার ৫শত টাকা করে ২৪ হাজার টাকা উৎকোচ নেন উপজেলা নির্বাহী অফিসের সার্টিফিকেট সহকারী সিদ্দিকুর রহমান। ১হাজার ৫শত টাকা কেটে রাখলেও সিদ্দিকুর রহমানের ভয়ে গ্রাম পুলিশ সদস্যরা কিছু বলতে পারেনি। এছাড়াও বিভিন্ন কাজের জন্য লোকজন গেলে তাদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ারও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কার্যালয়ের সার্টিফিকেট সহকারী অভিযুক্ত সিদ্দিকুর রহমান টাকা নেওয়া কথা স্বীকার করে বলেন, গ্রাম পুলিশ সদস্যদের প্রথম বেতন থেকে মন্ত্রনালয় ও ডিসি অফিসে মিষ্টি খাওয়ার জন্য ওই টাকা কেটে রাখা হয়েছে। এঘটনায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.সাখাওয়াত হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, গ্রাম পুলিশ সদস্যদের আমি নিয়োগ দিয়েছি। তাদের কাছ থেকে টাকা কেটে মিষ্টি খাওয়ার প্রশ্নেই উঠে না। আমি দ্রুত তাদের টাকা ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা করছি। এবং সিদ্দিকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ