স্মার্ট বাংলাদেশের উপযোগী করতে ১৫ হাজার কর্মকর্তাকে প্রশিক্ষণ দেয়া হবে

স্মার্ট বাংলাদেশের উপযোগী করতে ১৫ হাজার কর্মকর্তাকে প্রশিক্ষণ দেয়া হবে

স্মার্ট বাংলাদেশের উপযোগী দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির লক্ষ্যে সরকার ১৫ হাজার কর্মকর্তাকে অগ্রসর প্রযুক্তিতে প্রশিক্ষণ দিবে। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর জানানো হয়।
এতে বলা হয়, ১০ হাজার কর্মকর্তাকে কৃত্রিম বৃদ্ধিমত্তা (এআই)’র মতো সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে এবং ৫ হাজার কর্মকর্তাকে সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষণ করে গড়ে তোলা হবে।
প্রশিক্ষণের ব্যাপারে গত সোমবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অধীন গভর্নমেন্ট এমপ্লইজ ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (জেমস) এবং আইসিটি বিভাগের অধীন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের এনহ্যান্সিং ডিজিটাল গভর্মেন্ট অ্যান্ড ইকোনমি (ইডিজিই) প্রকল্পের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়।
নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন ইডিজিই প্রকল্প পরিচালক ড. মুহম্মদ মেহেদী হাসান এবং জেমস প্রোগ্রাম পরিচালক মো. আব্দুর রাজ্জাক। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেমস প্রোগ্রামের টিম লিডার ড. মো. আব্দুল মানান, পিএএ ও জেমস উপ-প্রোগ্রাম পরিচালক মো. দৌলত উজ্জামান খান, ইডিজিই প্রকল্পের উপপ্রকল্প পরিচালক মো. সাইফুল আলম খান, ডিজিটাল লিডারশিপ একাডেমির টিম লিডার ড. মাহফুজ শামীম।
অনুষ্ঠানে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্উদ্দিন চৌধুরী বলেন, এই সমঝোতা স্মারক সইয়ের মধ্য দিয়ে সরকারি কর্মকর্তাদের অগ্রসর প্রযুক্তিতে প্রশিক্ষণের দ্বার উন্মোচিত হলো। এই প্রশিক্ষণের লক্ষ্য হলো স্মার্ট বাংলাদেশের উপযোগী দক্ষ সরকারি কর্মকর্তা গড়ে তোলা। ড. আব্দুল মান্নান বলেন, তিনটি লক্ষ্য অর্জন এই প্রশিক্ষণের লক্ষ্য। এগুলো হলো- এআই, আইওটি’র মতো অগ্রসর প্রযুক্তিতে সরকারি কর্মকর্তাদের দক্ষ করে গড়ে তোলা, জনগণকে সরকারি সেবাদান দ্রুততর করা এবং সরকারি অফিসের ডিজিটাল সিস্টেমের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ ও নির্বিঘœ সেবা প্রদান।

সর্বশেষ