জনগণের ভাগ্য নিয়ে কাউকে ছিনিমিনি খেলতে দেয়া হবে না : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশের জনগণের ভাগ্য নিয়ে কেউ যেন ছিনিমিনি খেলতে না পারে তা নিশ্চিত করাই তার দলের একমাত্র লক্ষ্য।
তিনি বলেন, ‘আমাদের একটাই লক্ষ্য যে, এদেশের মানুষের ভাগ্য নিয়ে কেউ যেন ছিনিমিনি খেলা খেলতে না পারে।
গত ২৪ ডিসেম্বর দলের ২২তম কাউন্সিলের পর আজ সন্ধ্যায় তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত সভাপতিমন্ডলীর প্রথম বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
বাংলাদেশের জনগণ অনেক কষ্ট করেছে এবং ভবিষ্যতে তাদের আর ভোগান্তি পোহাতে হবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমাদের একমাত্র লক্ষ্য দেশের মানুষ একটি সুন্দর, উন্নত ও সমৃদ্ধ জীবন পাবে এবং আমরা তা করতে চাই।’
আওয়ামী লীগের কাউন্সিল হয়ে গেছে এবং দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কমিটির বাকি অংশ পূরণ করা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এই সংগঠন (আওয়ামী লীগ) আমাদের বড় শক্তি এবং এটা আমাদের মাথায় রাখতে হবে।’
টানা দশমবার আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হওয়া শেখ হাসিনা বলেন, সংগঠনটি (আওয়ামী লীগ) শক্তিশালী থাকলে আমরা জনগণের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করতে সক্ষম হব। তাহলে সরকার পরিচালনা এবং দেশের উন্নয়ন করা কঠিন কাজ হবে না।
তিনি বলেন, ‘এটাই হচ্ছে বাস্তবতা এবং আমরা এই বাস্তবতা নিয়ে আমাদের কাজ চালিয়ে যাব।’
বাংলাদেশ ইতোমধ্যে একটি ডিজিটাল দেশে পরিণত হয়েছে উল্লেখ করে, শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের লক্ষ্য ‘২০৪১ সালের মধ্যে ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ গড়ে তোলা।’
তিনি আরো বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশে সমস্ত মানুষই হবে স্মার্ট মানুষ, ই-পিপল। আমরা এটা করতে চাই।’ ডিজিটাল ডিভাইস ব্যবহার করে আমরা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাব।
শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে থাকবে এবং এটাই হচ্ছে বাস্তবতা।

সর্বশেষ