দুর্দান্ত মার্টিনেসে তৃতীয় শিরোপা জিতলো আর্জেন্টিনা

আকাশ দাশ/ক্রীড়া প্রতিবেদক
এমিলিয়ানো মার্টিনেসের দুর্দান্ত কিপিংয়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সকে পেনাল্টি শুট আউটে ৪-২ ব্যবধানে হারিয়ে ৩৬ বছর পর তৃতীয় শিরোপা ঘরে তুললো আর্জেন্টিনা।

আজ কাতারের লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকে ফান্সের বিপক্ষে আক্রমণাত্মক খেলতে থাকা আর্জেন্টিনার প্রথম সাফল্য পেতে অপেক্ষা করতে হয়নি বেশিক্ষণ। ম্যাচের ২৩ মিনিটের মাথায় ডি মারিয়াকে উসমান দেম্বেলে ফাউল করে বসলে পেনাল্টি পায় আলভেসেলিস্তারা। আর সেখান থেকে হোগে লরিসকে বোকা বানিয়ে বল জাল খোঁজে টুর্নামেন্টে নিজের ষষ্ঠ গোল করেন মেসি। প্রথম গুলোর পর দ্বিতীয় গোল পেতে বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি স্কোলনির শিষ্যদের। ম্যাক অ্যালিস্টারের বাড়ানো বল ফরাসি গোলরক্ষককে একা পেয়ে জালে জড়াতে ভুল করেনি ডি মারিয়া। ম্যাচের প্রথমার্ধেই দুই গোল হজম করা ফান্স এইদিন আর্জেন্টাইন ডি বক্সে আক্রমণে ব্যস্ত থাকলে ও গোলের দেখা পায়নি ফলে ২-০ গোলে পিছিয়ে থেকে প্রথমার্ধের খেলা শেষ করে দিদিয়ের দেশমের শিষ্যরা।

বিরতি থেকে ফিরে নিজেদের সেরা ছন্দে ফিরে ফ্রান্স। তবে ম্যাচের প্রথম সাফল্য পেতে ওদের অপেক্ষা করতে হয়েছে ম্যাচের ৭৯ মিনিট পর্যন্ত। নিজেদের ডি বক্সের ভিতর ফরাসি এক ফুটবলারকে ফাউল করে বসলে পেনাল্টি পায় ফ্রান্স আর সেখান থেকে গোল করে ব্যবধান কমায় এমবাপ্পে। প্রথম গোলের পর অবশ্য ম্যাচে সমতায় ফিরতে বেশী দেরি করেনি এমবাপ্পে। ডি বক্সের থেকে নেওয়া এমবাপ্পের শট আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক মার্টিনেসকে পরাস্থ করে জাল খোঁজে নিলে সমতায় ফিরে ফ্রান্স। এরপর ম্যাচের নির্ধারিত সময় শেষে দুইদলের কেউ গোল দিতে না পারলে ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে মেসির গোল থেকে ব্যবধানে ৩-২ ব্যবধানে নিয়ে যান। তবে বেশিক্ষণ ব্যবধান ধরে রাখতে পারেনি স্কোলনির শিষ্যরা। ম্যাচের শেষ মুহূর্তে এমবাপ্পের পেনাল্টি থেকে আবারো সমতায় ফিরে ফ্রান্স। ফলে অতিরিক্ত সময়ে আর গোল না হলে ম্যাচ গড়ায় ট্রাইব্রেকার আর সেখানেই মার্টিনেসের দুর্দান্ত কিপিংয়ে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আর্জেন্টিনা।

সর্বশেষ