সরকার হটানো ছাড়া কোনো বিকল্প নেই: খন্দকার মোশাররফ

সারা বিশ্ব বলে দিয়েছে শেখ হাসিনার অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না বলে মন্তব্য করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, এ সরকারকে হটানো ছাড়া বিকল্প নেই।

মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) বিকেলে নয়াপল্টনে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপির আয়োজনে প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, গত ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশে ১০ দফা দাবি ছিল। তার মধ্যে অন্যতম সরকারের পদত্যাগ, সংসদ বাতিল, সুষ্ঠু নির্বাচন। এসব দাবি বাস্তবায়নে নেতাকর্মীরা রাজপথে থাকবে।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার রাজনৈতিকভাবে ব্যর্থ হয়েছে বলে মন্তব্য করে বিএনপির এই সিনিয়র নেতা বলেন, সরকার ভেবেছিল আমাদের মহাসচিবসহ সিনিয়র নেতাদের গ্রেপ্তার করে সমাবেশ পণ্ড করবে। কিন্তু সেটা করতে পারেনি। সরকার ব্যর্থ হয়েছে। সরকারের বিদায় ঘণ্টা বেজে গেছে। তারা চলে যাবে। কিন্তু পুলিশ প্রশাসন আপনারা থাকবেন। তাই আপনারা জনগণের সঙ্গে থাকুন।

ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, গত ৭ ডিসেম্বর আমাদের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তছনছ করে বর্বরতা চালানো হয়েছে।সেখান থেকে সিনিয়র নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কম্পিউটার ভেঙে ফেলেছে। যার লক্ষ্য ছিলো ১০ ডিসেম্বর বিএনপির ঢাকা বিভাগের গণসমাবেশ পণ্ড করা। তবুও আমাদের গণসমাবেশ ঠেকাতে পারেনি। বরং জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছিল।

তিনি আরও বলেন, ফ্যাসিবাদী আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। ভোটাধিকার হরণ করেছে। গণতন্ত্র হত্যা করে দিনের ভোট রাতেই ডাকাতি করে অবৈধভাবে সংসদ গঠন করেছে।

এ সময় তিনি বলেন, বানোয়াট মামলায় ফরমায়েশ রায় দিয়ে আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বন্দি রেখেছে। দেশনায়ক তারেক রহমানকে বিদেশে থাকতে বাধ্য করেছে। তেমনিভাবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নিজেদের ক্ষমতার জন্য ব্যবহার করছে। আওয়ামী লীগ এতো নির্যাতন করেও বিএনপিকে দুর্বল করতে পারেনি। যার প্রমাণ বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশে লাখ লাখ মানুষের অংশগ্রহণ। জনগণ পরিষ্কার বার্তা দিয়েছে যে, এই সরকারকে তারা চায় না।

সূত্র: দেশ রূপান্তর

সর্বশেষ