যে কারণে ছেলের হাতে খুন হলেন এ অভিনেত্রী

ভারতীয় টিভি অভিনেত্রী বীণা কাপুর নিজ ছেলের হাতে খুন হয়েছেন। তার ছেলে শচীন কাপুর সম্পত্তির জন্য মাকে বেসবল ব্যাট দিয়ে আঘাত করেন। এ আঘাতেই বীণা কাপুরের মৃত্যু হয় বলে জানা গেছে।  প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানিয়েছে, সম্পত্তির জন্য বীণাকে বেসবল ব্যাট দিয়ে ক্রমাগত পিটিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করেন তার ছোট ছেলে শচীন কাপুর। বীণার মৃত্যু নিশ্চিত করার পর প্লাস্টিকের ব্যাগে করে লাশ রায়গড়ের জঙ্গলের মাথেরান নদীতে ফেলে দেওয়া হয়।

ভারতীয় গণমাধ্যমসূত্রে জানা গেছে, ছোট ছেলে শচীন কাপুরের কাছে থাকতেন বীণা কাপুর। সম্পদ নিয়ে এ রকম কিছু ঘটতে পারে, তা আগে থেকে বুঝতে পেরেছিলেন তার যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী বড় ছেলে। কয়েক দিন ধরে মায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করতে না পেরে জুহু পুলিশকে জানান তিনি।
এরপরই অভিযুক্ত ছেলে শচীন কাপুরকে আটক করে বীণা কাপুরের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এখন পুলিশের হেফাজতে আছেন ৪৩ বছর বয়সী শচীন।

বীণা কাপুরের খুনের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে তার পরিচালক ছোটু ওরফে লালুকুমার মণ্ডলকেও (২৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জানা যায়, অনেক দিন ধরে প্রায় ১২ কোটি টাকার সম্পত্তি নিয়ে মা বীণা কাপুরের সঙ্গে ছোট ছেলের ঝামেলা হচ্ছিল। তার জেরে নিজের ওপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাকে হত্যা করেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই নৃশংস ঘটনা প্রকাশ করেছেন বীণা কাপুরের সহ-অভিনেত্রী নীলু।এরপর থেকে বিনোদনজগতে তোলপাড় চলছে। মাকে কেউ এভাবে হত্যা করতে পারেন-তা মানতে পারছেন না সবাই।

সূত্র: যুগান্তর

সর্বশেষ