ডাচরা ২০৩৫ সালের মধ্যে দু’টি নতুন পারমানু বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের পরিকল্পনা করছে

দ্য হেগ, ১০ ডিসেম্বর, ২০২২ (বাসস ডেস্ক): ডাচ সরকার শুক্রবার বলেছে, তারা নেদারল্যান্ডসের দক্ষিণাঞ্চলে একটি শহরের কাছে দু’টি নতুন পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ করবে। এটি জীবাশ্ম জ্বালানির উপর নির্ভরতা কমিয়ে দেবে। প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুট বলেন, বোরসেল শহরের কাছাকাছি প্ল্যান্ট দু’টির নির্মান কাজ ২০৩৫ সালের মধ্যে শেষ হবে এবং নেদারল্যান্ডসের চাহিদার ১৩ শতাংশ পর্যন্ত বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে।
সাপ্তাহিক সংবাদ সম্মেলনে রুট বলেন, ‘আমাদের মোট জ্বালানি সমন্বয়ে পারমাণবিক শক্তি যোগ করার মাধ্যমে আমরা বিদ্যুৎ উৎপাদন থেকে কার্বন ডাই অক্সাইড নির্গমন হ্রাস করবো। এই জীবাশ্ম জ্বালানি যে দেশগুলো থেকে আসে তাদের উপর নিজেদেরকে নির্ভরশীলতা কমিয়ে আনবো।

রাশিয়ার ইউক্রেন আক্রমনের কারণে রাশিয়া থেকে তেল ও গ্যাসের প্রবাহ ব্যাহত হওয়ায় নেদারল্যান্ডস এবং ইউরোপের অন্যত্র জ্বালানির দাম বাড়ছে। বেলজিয়ান সীমান্তের কাছে বোরসেল, ইতিমধ্যেই নেদারল্যান্ডসের একমাত্র পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের সাইট যা এখনও বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য ব্যবহৃত হয়। এটি ১৯৭৩ সালে নির্মিত হয়েছিল। পরিবেশগতভাবে সংবেদনশীল নেদারল্যান্ডসে পারমাণবিক শক্তি একটি বিতর্কিত বিষয়। কিন্তু সাম্প্রতিক বছরগুলিতে এটি জলবায়ু,তাপ ও কার্বন নির্গমন হ্রাস করার বিকল্প হিসাবে কাজ করবে।  রুট বলেন, সরকার ২০২৩-২৪ সালের শীতকালীন গ্যাসের মজুদ পূরণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তিনি বলেন, ‘এর কারণ হল ইউক্রেনের যুদ্ধ এবং জ্বালানি বাজারের বর্তমান পরিস্থিতি কিছু সময়ের জন্য স্থায়ী হতে পারে

সর্বশেষ