যে সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়ে আর্জেন্টিনা

কাতার বিশ্বকাপের অন্যতম জনপ্রিয় দলগুলোর একটি আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ মিশন এখন নির্ভর করছে পোল্যান্ডের বিপক্ষে আজ রাতের ম্যাচের ওপর। প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের বিপক্ষে ২-১ গোলের হার দিয়ে শুরু হয় আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ-যা স্মরণকালের সবচেয়ে আলোচিত ম্যাচের একটি।

এরপর লিওনেল মেসির নৈপুণ্যে মেক্সিকোর বিপক্ষে ২-০ গোলের একটি জয় দিয়ে আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপের সেরা ১৬-তে জায়গা করে নেয়ার আশা টিকিয়ে রাখে। আর্জেন্টিনা মাঠে নামার আগে বিশ্বকাপের অন্যতম দাবিদার দল হিসেবেই গণ্য হয়েছে এবার, পোল্যান্ডের বিপক্ষে একটি জয় দলটিকে আবারও ট্র্যাকে ফিরিয়ে আনবে। সেক্ষেত্রে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই দ্বিতীয় রাউন্ডে যাবেন লিওনেল মেসিরা।

গ্রুপ সি-এর কী অবস্থা এখনো পর্যন্ত গ্রুপ সি এর শীর্ষ স্থানে আছে পোল্যান্ড, দুই ম্যাচে দলটির চার পয়েন্ট, একটি ড্র ও একটি জয় পেয়েছে রবার্ট লেওয়ান্ডভস্কির দল। লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা আছে দুই নম্বরে, দুই ম্যাচে পয়েন্ট তিন। তিন ও চার নম্বরে আছে যথাক্রমে সৌদি আরব ও মেক্সিকো। গ্রুপ সি-তে চারটি দলেরই পরের রাউন্ডে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বুধবার বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত একটায় পোল্যান্ড বনাম আর্জেন্টিনা ম্যাচ এবং একই সময়ে মেক্সিকো বনাম সৌদি আরবের ম্যাচে নির্ধারিত হবে পরের রাউন্ডের দুই দল।

আর্জেন্টিনার হাতেই আছে নিজেদের নিয়তি আর্জেন্টিনা নিজেদের চেষ্টাতেই অনায়াসে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে যেতে পারবে, পোল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ই যথেষ্ট হবে সেক্ষেত্রে। এই ম্যাচে জয় পেলে আর্জেন্টিনার পয়েন্ট হবে-তিন ম্যাচে ছয়। আর্জেন্টিনা দুই গোল ব্যবধানে এগিয়ে আছে। তাই সৌদি আরব যদি মেক্সিকোকে হারিয়েও দেয়, অন্তত তিন থেকে চার গোলের ব্যবধানে হারাতে হবে।

সেক্ষেত্রেও আর্জেন্টিনা পরের রাউন্ডে যাবে কিন্তু গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হবে সৌদি আরব। তবে আপাতত এই হিসাব অনেক কঠিন মনে হচ্ছে সৌদি আরবের কাছে, টুর্নামেন্টের ফেভারিটদের হারালেও তারা নিশ্চিত নন।

ফিফা বিশ্বকাপের নিয়ম অনুযায়ী দুই দলের পয়েন্ট সমান হলে, গোল ব্যবধান দেখা হবে। আর্জেন্টিনার জন্য দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়নই হতে চাইবে, কারণ গ্রুপ রানার আপ হলে আর্জেন্টিনার সম্ভাব্য প্রতিপক্ষ হতে যাচ্ছে ফ্রান্স-যাদের কাছে ৪-৩ গোলে হেরে আর্জেন্টিনা দ্বিতীয় রাউন্ডে বাদ পড়েছিল রাশিয়া বিশ্বকাপে।

আর্জেন্টিনা যদি ড্র করে আর্জেন্টিনা যদি পোল্যান্ডের বিপক্ষে ড্র করে, এটা গোটা গ্রুপের সমীকরণ জটিল করে তুলবে। সেক্ষেত্রে আর্জেন্টিনা উত্তীর্ণ হওয়ার সুযোগ থাকলেও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারবে না। পোল্যান্ডের পয়েন্ট হবে পাঁচ, আর্জেন্টিনার চার। এক্ষেত্রে আর্জেন্টিনা চোখ রাখবে অপর ম্যাচটির দিকে।

সৌদি আরব ও মেক্সিকোর ম্যাচে সৌদি আরবের জয় আর্জেন্টিনাকে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে দেবে। সৌদি আরব ছয় পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে চলে যাবে। মেক্সিকো জিতে গেলে আর্জেন্টিনার সাথে গোল পার্থক্যের দিকে তাকাতে হবে দলটির।

মেক্সিকোর চেয়ে এখন আর্জেন্টিনা তিন গোলে এগিয়ে আছে। মেক্সিকো যদি সৌদি আরবের বিপক্ষে তিন বা তার বেশি গোলের ব্যবধানে জয় পায় সেক্ষেত্রে আর্জেন্টিনা বাদ পড়বে ও মেক্সিকো যাবে দ্বিতীয় রাউন্ডে।

মেক্সিকো ও সৌদি আরবের ম্যাচ ড্র হলে আর্জেন্টিনা গোল ব্যবধানে এগিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে চলে যাবে। আর্জেন্টিনা হারলেই বাদ তবে আর্জেন্টিনা হেরে গেলে আর কোনও সমীকরণ কাজে আসবে না। এক্ষেত্রে আর্জেন্টিনা সরাসরি বিদায় নেবে প্রথম রাউন্ড থেকে। এর আগে আর্জেন্টিনা ২০০২ সালে জাপান- দক্ষিণ কোরিয়া বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে বাদ পড়েছিল।

সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন

সর্বশেষ