শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ মামলায় প্রধান শিক্ষকের যাবজ্জীবন

রাঙামাটির লংগদুতে শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রধান শিক্ষককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ ১০ লাখ টাকার অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আর ৩ মাস সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল।মঙ্গলবার দুপুর দেড়টায় রাঙামাটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বিচারক জেলা ও দায়রা জজ এ ই এম মো. ইসমাইল হোসেন এ রায় ঘোণষা করেন। আসামির নাম মো. আব্দুল রহিম (৪৬)। তিনি করল্যাছড়ি আরএস উচ্চ বিদ্যালয়েল প্রধান শিক্ষক।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের সরকার পক্ষের আইনজীবী (পাবলিক প্রসিকিউটার) মো. সাইফুল ইসলাম অভি জানান, ২০২০ সালে ৫ অক্টোবর  করল্যাছড়ি আরএস উচ্চ বিদ্যালয়েল প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন নির্যাতনের শিকার শিক্ষার্থীর মা। পুলিশ আসামিকে গ্রফতার করার পর দীর্ঘ ২ বছর এ মামলার তদন্ত চলে। সাক্ষীদের সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে আদালত নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ৯(১) ধারায় আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেন। একই সাথে ১০ লাখ টাকা ৯০ দিনের মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে প্রদানের জন্য আসামিকে নির্দেশ দেন। অনাদায়ে আরও ৩ বছর কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে আসামিকে।

বাদী পক্ষের আইনজীবী জুয়েল চাকমা বলেন, এ রায়ে খুবই সন্তুষ্ট আমরা। এ রায়ের পর সমাজে অপরাধ প্রবণতা কমে আসবে। আমরা সবাই চেষ্টা করছি নির্যাতনের শিকার শিশুটি যাতে ন্যায় বিচার পায়।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ২৫ সেপ্টম্বর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রাঙামাটির লংগদু উপজেলার ১ নম্বর আটারকছড়া ইউনিয়নের করল্যাছড়ি আরএস উচ্চ বিদ্যালয়ে ছাত্রাবাসের ভেতরে ওই ছাত্রীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করেন প্রধান শিক্ষক।

সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন

সর্বশেষ