আবেদন না করেই ওয়াসায় ডিএমডি পদে চাকরি

নিজস্ব প্রতিবদেক :

ঢাকা ওয়াসা বোর্ডের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) মানবসম্পদ ও প্রশাসন পদে আবেদন না করেও নিয়োগ পেয়েছেন ড. সৈয়দ মো. গোলাম ইয়াজদানী। জানা যায়, ওই পদে ঢাকা ওয়াসা বোর্ডের বিশেষ আকর্ষণ থাকায় যথাযথ নিয়ম মেনে আবেদন করেও ৪৩ জনের কেউ বিবেচনার যোগ্য হতে পারেননি।

এ ঘটনাকে ঢাকা ওয়াসা বোর্ডের প্রচলিত রীতি ও আইনের প্রতি অসম্মান হিসাবে দেখছেন ঢাকা ওয়াসা সংশ্লিষ্টরা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ঢাকা ওয়াসা বোর্ড গত ৯ জানুয়ারি উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (মানবসম্পদ ও প্রশাসন) পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। এই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে গত ৩০ জানুয়ারির মধ্যে নির্ধারিত লিখে আবেদন করতে বলা হয়। ওই নির্দেশনা অনুসরণ করে ৪৩ ব্যক্তি আবেদন করেন।

জানা যায়, ওই পদে বোর্ডের সুপারিশক্রমে গত ১৭ এপ্রিল উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে নিয়োগ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। পানি সরবরাহ অধিশাখা-২ এর উপ-সচিব মোহাম্মদ সাঈদউর রহমান এ প্রজ্ঞাপনে নিয়োগ চূড়ান্তের কথা জানানো হয়েছে।

ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ঢাকা ওয়াসার স্মারক নং ৪৬.১১৩.২১৮.০০.০০.১৩৩. ২০২২-১০৭৬, তারিখ ২৪ মার্চ ২০২২ এর প্রেক্ষিতে জানানো যাচ্ছে যে, ঢাকা ওয়াসা বোর্ডের সুপারিশের আলোকে ড. সৈয়দ মো. গোলাম ইয়াজদানীকে ঢাকা ওয়াসার উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (মানবসম্পদ ও প্রশাসন) পদে পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষ আইন, ১৯৯৬ আইনের ২৯ (১) ধারার প্রদত্ত ক্ষমতাবলে নিয়োগের প্রস্তাব সরকারের অনুমোদন নির্দেশক্রমে জ্ঞাপন করা হলো।

ঢাকা ওয়াসার এক দায়িত্বশীল শীর্ষ কর্মকর্তা এ প্রসঙ্গে বলেন, ঢাকা ওয়াসার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির সময়সীমার মধ্যে মানবসম্পদ ও প্রশাসন বিষয়ক ডিএমডি পদে নিয়োগপ্রাপ্ত ব্যক্তি আবেদন করেনি। ঢাকা ওয়াসার নির্ধারিত নিয়েও এমন প্রমাণ নেই। এরপরও ধরনের নিয়োগ কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।

তিনি আরো বলেন, কর্তৃপক্ষ যদি বিশেষ কাউকে আবেদনের সুযোগ দিতে চাইতেন, তাহলে পুনরায় আবেদন আহ্বান করতে পারতেন। এটা সুন্দর ও গ্রহযোগ্য হতো। কিন্তু সেটা না করে ঢাকা ওয়াসা বোর্ড নিজেদের খেয়াল-খুশিমতো লোক ডেকে এনে, তাকে নিয়োগের সুপারিশ করলেন। এমন ঘটনা ঘটলে ওই বোর্ডের প্রতি মানুষের কোনো আস্থা থাকবে না। কর্তৃপক্ষের ঢাকা ওয়াসার মর্যাদা রক্ষার প্রয়োজনে এ নিয়োগ বাতিল করে নতুন করে করা উচিত।

নাম প্রকাশ না শর্তে ঢাকা ওয়াসা বোর্ডে এক সদস্য বলেন, ডিএমডি মানবসম্পদ ও প্রশাসন পদে গত ১৭ এপ্রিল যাকে চূড়ান্ত করে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে, তিনি যথাসময়ে আবেদন করেননি। ঢাকা ওয়াসা বোর্ড চেয়ারম্যানের বিশেষ আগ্রহের কারণে তিনি নিয়োগ পেয়েছেন। বোর্ড সদস্যদের নিকট বিশেষ অনুরোধ করে সময় চলে যাওয়ার পর ব্যক্তির আবেদন নেওয়া হয়।

ঢাকা ওয়াসা বোর্ড সদস্য ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন এ বিষয়ে জানতে চাইলে বলেন, ঢাকা ওয়াসায় কখন, কীভাবে তাদের নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে, সে বিষয়ে আমার পরিষ্কার ধারণা নেই। বোর্ড সভায় কিছু কিছু বিষয় আলোচনা হয়, তখন আইন সঙ্গত মতামত দেওয়ার চেষ্টা করি।

ঢাকা ওয়াসা বোর্ড চেয়ারম্যান ড. প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বলেন, এ ধরনের কোনো ঘটনা ওয়াসায় ঘটেনি।

সর্বশেষ