গোলশূন্য ড্র ডেনমার্ক-তিউনিশিয়ার ম্যাচ

২২তম ফিফা বিশ^কাপে গ্রুপ-ডি’তে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আজ গোলশূন্য ড্র করেছে ডেনমার্ক ও তিউনিশিয়া। পুরো ম্যাচে বেশিরভাগ সময় বল দখলে রেখেও গোলের দেখা পায়নি ডেনমার্ক। ১১টির মধ্যে ৫টি শট গোলবারে নিয়েও লক্ষ্য ভেদ করতে পারেনি ড্যানিশরা। পক্ষান্তরে ১৩টির মধ্যে মাত্র ১টি শট টার্গেটে করেও সাফল্য পায়নি তিউনিশিয়া।
দোহার এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচের শুরু থেকেই বল দখলে মরিয়া ছিলো ডেনমার্ক-তিউনিশিয়া উভয় দলই । তবে এ ক্ষেত্রে সফল হয়ে মধ্য মাঠে নিজেদের নিয়ন্ত্রনে রাখলেও প্রতিপক্ষের উপর চাপ বাড়াতে পারেনি ডেনমার্ক।
উল্টো ২৩ মিনিটে গোল পেয়ে যায় তিউনিশিয়া। কিন্তু অফ-সাউডের কারনে গোলটি বাতিল করে দেন লাইন্সম্যান। দিনের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার ৩টি গোল অফসাইডের কারণে বাতিল হয়।
প্রথমার্ধের বাকী সময়ে আক্রমন-প্রতিআক্রমন করেছে করেছে ডেনমার্ক-তিউনিশিয়া উভয়েই। তবে দু’দলের গোলরক্ষকের নৈপুন্যে সাফল্য পায়নি কোন দল।
৩৪ মিনিটে ডেনমার্কের মিডফিল্ডার ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনের ক্রস থেকে বল পেয়ে ডি-বক্স থেকে তিউনিশিয়ার গোলবাারে শট নেন পিয়েরে-এমিলে হোবার্গ। কিন্তু সেটি রুখে দেন তিউনিসিয়ার গোলরক্ষক আয়মান দাহমান।
৪৩ মিনিটে ডেনমার্ককে নিশ্চিত গোল হজম থেকে বাঁচিয়ে দেন গোলরক্ষক কাসপার সিমিচেল। স্ট্রাইকার ইউসুফ মাসাকানির পাস থেকে বল পেয়ে ডেনমার্কের বক্সে ঢুকে যান আক্রমনভাগের আরেক খেলোয়াড় তিউনিশিয়ার ইসাম জেবালি। চিপ শটে বল জালে পাঠাতে চেয়েছিলেন । তবে সামনে এগিয়ে এসে এক হাতে কর্নারের বিনিময়ে দলকে গোল হজম থেকে রক্ষা করেন সিমিচেল। শেষ পর্যন্ত গোলশুন্য ভাবেই শেষ হয় ম্যাচের প্রথমার্ধ।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে কর্নার থেকে পাওয়া বলে শট নেন জেবালি। সেটিও রুখে দেন সিমিচেল। ৭০ মিনিটে মধ্যমাঠ থেকে আক্রমন শানায় ডেনমার্ক। এরিকসনের ক্রস থেকে হেড নিয়েছিলেন স্ট্রাইকার আন্দ্রেস কোরনেলিয়াস। কিন্তু বাঁ-দিকে ঝাপিয়ে বলকে দখলে নেন দাহমান।
ম্যাচের শেষ দিকে ভালো কোন আক্রমন করতে পারেনি কোন দলই । শেষ পর্যন্ত পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মাঠ ছাড়ে দু’দল।
আগামী ২৬ নভেম্বর আল-জানুব স্টেডিয়ামে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলবে তিউনিশিয়া। একই দিন ৯৭৪ স্টেডিয়ামে ফ্রান্সের বিপক্ষে খেলতে নামবে ডেনমার্ক।

সর্বশেষ