গবেষণার কাজে জাপানে নরসিংদীর বিজ্ঞানী ড. মাহমুদুল হাছান

জামালপুরের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেফমুবিপ্রবি) ফিশারিজ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক বিজ্ঞানী ড. মাহমুদুল হাছান ( ফিরুজ) গবেষণার জন্য নাগাহামা ইনস্টিটিউট অফ বায়ো-সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির সহযোগী প্রফেসর ড. আটশুসি কুরাবায়সীর আহবানে শনিবার (১২ নভেম্বর ) জাপান গেছেন। সেখানে তিনি সাপ ও ব্যাঙ মধ্যে হরিজেন্টাল (আনুভূমিক) জিন ট্রান্সফারের বিষয়ে, যমুনা নদীর রুই মাছের জীবন রহস্য উন্মোচন , পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নদের বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ও অন্যান্য প্রাণীর মলিকুলার বিষয়ে গবেষণা করবেন।

তার ৩টি নতুন প্রজাতির ব্যাঙ (হোপলোব্যাট্র্যাকাস লিটোরালিস , মাইক্রোহিলা মোখলেসুরি ও মাইক্রোহিলা মাইমেনসিংহেসিস) আবিষ্কার সহ অনেক মৌলিক গবেষণা রয়েছে এবং ২৮টির বেশি গবেষণা পেপার দেশি-বিদেশি জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।তিনি AD Scientific Index এর মতে ২০২২ সলে বশেফমুবিপ্রবির সকল ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান অধিকার করেছেন।

তিনি বায়োলজিক্যাল সাইন্সে মৌলিক বিষয়ে গবেষণা করে মানবজাতি ও সভ্যতার উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। এখানে উল্লেখ্য যে, তার প্রচেষ্টায় ইউজিসির ফান্ডে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য জেনেটিক এনালাইজার নামক ১কোটি ২৫ লক্ষ টাকা মূল্যের যন্ত্র ক্রয়ের প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

উল্লেখ্য, ড. মাহমুদুল হাছান (ফিরুজ) হাতিরদিয়া ছাদত আলী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি,ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি এবং বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ থেকে বিএসসি ফিশারিজ অনার্স, মাস্টার্স সম্পন্ন করেন । এরপর জাপানের হিরোশিমা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি এবং পোস্ট ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করে ঐ বিশ্ববিদ্যালয়ে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

সর্বশেষ