১১ হাজার কর্মী ছাঁটাই মেটা-র, ‘দুঃখিত’ জাকারবার্গ

টুইটারের পর এবার মেটা। প্রায় ১১ হাজার কর্মীকে ছাঁটাই করতে চলেছে ফেসবুকের নিয়ন্ত্রক সংস্থা মেটা। কাজ হারাতে বসা ওইসব কর্মী সংস্থায় কর্মরত মোট কর্মীর ১৩ শতাংশ। এই ছাঁটাই নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন সংস্থার প্রধান মার্ক জাকারবার্গ।

মেটার সিইও জাকারবার্গ এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, কর্মী ছাঁটাইয়ের পুরো দায় আমার। কোম্পানির এই পরিস্থিতির জন্য আমিই দায়ী। কর্মীদের জন্য এটা খুব কঠিন চ্যালেঞ্জে। এর যে প্রভাব তাদের উপরে পড়তে চলেছে তার জন্য আমি দুঃখিত। জাকারবার্গ তাঁর ব্লগে লিখেছেন, সংস্থার ১৩ শতাংশ প্রতিভাবান কর্মীকে হারাতে হচ্ছে। তবে কোম্পানির উন্নতিতে আমরা কিছু পদক্ষেপ নিচ্ছি।

মেটা তৈরি হওয়ার পর এত বিপুল সংখ্যক কর্মীছাঁটাই আগে কখনও হয়নি। ফেসবুক তৈরি হয়েছিল ২০০৪ সালে। তার পর থেকে মন্দার প্রকোপে এতবড় ধাক্কা কর্মীদের উপরে আসেনি।

সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, মেটা তার মেটাভার্স প্রকল্পে বিপুল টাকা বিনিয়োগ করে বসেছে। কিন্তু প্রকল্পটি সফল না হওয়ায় বিপুল আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন মেটা। তারই ফল ভোগ করতে হচ্ছে মেটা কর্মীদের। এবছর মেটার শেয়ার প্রায় ৭১ শতাংশ পড়ে যায়।

এই বিপুল সংখ্যক কর্মীছাঁটাই হবে কীভাবে? মেটার তরফে জানানো হয়েছে, বিদায়ী কর্মীদের ১৬ সপ্তাহের বেসিক বেতন দেওয়া হবে। পাশাপাশি, যত বছর চাকরি করেছেন তা প্রতি বছরের জন্য ২ সপ্তাহের অতিরিক্ত বেতন দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, করোনা লকডাউনের সময়ে অন্যান্য কোম্পানির মতো বিপুল পরিমাণ মুনাফা ঘরে তুলেছিল ফেসবুক। কিন্তু লকডাউন শেষ হতেই লোকসানের সম্মুখীন মেটা। এবছর প্রথম ৪ মাসে বিপুল টাকা লোকসান করে মোটা। পরের চার মাসেও তা তুলতে পারেনি জাকারবার্গের কোম্পানি। শেষপর্যন্ত ছাঁটাইয়ের পথেই হাঁটল মোটা।–জি নিউজ

সর্বশেষ