লিটারে ৫ টাকা কমল জেট ফুয়েলের দাম

অভ্যন্তরীণ উড়োজাহাজের জ্বালানি জেট ফুয়েলের দাম লিটারে ৫ টাকা কমিয়ে ১৩০ থেকে ১২৫ টাকা নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন (বিপিসি)।

বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) নতুন এই দর ঘোষণা করে প্রতিষ্ঠানটি, যা আগামীকাল শুক্রবার (১১ নভেম্বর) থেকে কার্যকর হবে।

এছাড়াও আন্তর্জাতিক গন্তব্যের জন্য প্রতিলিটার জেট ফুয়েলের দাম ১ ডলার থেকে ৪ সেন্ট কমিয়ে ৯৬ সেন্ট করা হয়েছে।

সর্বশেষ গত ৩১ অক্টোবর দেশে অভ্যন্তরীণ রুটের ফ্লাইটে ব্যবহৃত জেট ফুয়েলের দাম বাড়ানো হয়। সেদিন প্রতি লিটারে ফুয়েলের দাম পাঁচ টাকা বাড়িয়ে ১৩০ টাকা করা হয়। তবে, আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের জন্য প্রতি লিটার জেট ফুয়েলের দাম নয় সেন্ট কমিয়ে এক ডলার করা হয়।

জেট ফুয়েলের দাম কমানোর দাবিতে গত ৬ নভেম্বর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের কাছে আবেদন করে বেসরকারি এয়ারলাইন্স মালিকরা। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ে একটি চিঠি দেয় এভিয়েশন অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (এওএবি)।

এওএবির মহাসচিব ও নভোএয়ার লিমিটেড ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম মফিজুর রহমান এবং এওএবির সহ-সভাপতি ও ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল্লাহ্ আল মামুন চিঠিটি দেন।

চিঠিতে বলা হয়েছে, এয়ারলাইন্স পরিচালনা ব্যয়ের ৪০-৪৬ ভাগই জ্বালানি খরচের ওপর নির্ভরশীল। তবে বাংলাদেশে অতি মূল্যায়িত জেট ফুয়েলের কারণে এভিয়েশন খাত অস্তিত্বের সংকটে নিপতিত। এভিয়েশন খাত দীর্ঘ করোনাকালীন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে উপনীত হয়।

চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, ইউক্রেন যুদ্ধের ফলে জ্বালানি তেলের অত্যাধিক মূল্যবৃদ্ধি এই খাতে উপর্যুপরি আঘাত করেছে। ফলে এয়ারলাইন্সগুলোর দেউলিয়া ঘোষণা শুধু সময়ের ব্যাপার মাত্র। জেট ফুয়েল বিশেষ করে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের জন্য বাংলাদেশ প্রায়ই আন্তর্জাতিক বাজার মূল্যের চেয়ে ৩০-৪০ শতাংশ বেশি মূল্যে ক্রয় করতে হয়। ফলশ্রুতিতে জিএমজি, ইউনাইটেড এবং রিজেন্টের মতো সম্ভাবনাময় এয়ারলাইন্সগুলো দেউলিয়া হয়েছে। জেট ফুয়েল বিক্রয়ের একক কর্তৃত্ব পদ্মা অয়েল কোম্পানির থাকায় এয়ারলাইন্সগুলো প্রতিযোগিতামূলক দামে জেট ফুয়েল ক্রয়ের অধিকার থেকে বঞ্চিত।

বর্তমান পরিস্থিতিতে প্রতিমন্ত্রীর কাছে কিছু প্রস্তাবনা দেওয়া হয় এওবির পক্ষ থেকে। সেগুলোর মধ্যে রয়েছে, দেশীয় প্রাইভেট সেক্টর এয়ারলাইন্স এবং হেলিকপ্টার অপারেটরদের জন্য সরাসরি পারটেক্স পেট্রোলিয়াম থেকে জ্বালানি ক্রয়ের অনুমোদন, প্রয়োজনে প্রতিযোগিতামূলক মূল্যে বিদেশ থেকে জেট ফুয়েল আমদানির অনুমোদন প্রদান, অভ্যন্তরীণ জ্বালানি মূল্য আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের জ্বালানি মূল্যের সঙ্গে সমন্বয় করা।

সর্বশেষ