দুই অভিনেত্রীর সঙ্গে ‘পরকীয়ার’ গুঞ্জন শোয়েব মালিকের!

 

twitter sharing button
linkedin sharing button
ভারতের টেনিস সেনসেশন সানিয়া মির্জার সঙ্গে সুখের সংসার পেতেছেন পাকিস্তানের ক্রিকেটার শোয়েব মালিক। হঠাৎ শোনা যাচ্ছে তাদের সম্পর্কে চিড় ধরেছে। দুজন নাকি এক ছাদের নিচে থাকছেন না।

বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে— দুজনের সম্পর্কে ফাটলের অন্যতম কারণ নাকি দেশটির অভিনেত্রী আয়েশা ওমরের সঙ্গে শোয়েবের ঘনিষ্ঠতা। খবর ডেইলি জাংয়ের।

২০২১ সালে একটি ম্যাগাজিনের জন্য ফটোশুটে একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল শোয়েব ও আয়েশাকে। তার পর থেকেই নাকি অভিনেত্রীর সঙ্গে প্রেমে জড়িয়ে পড়েন পাক ক্রিকেটার।

ফটোশুটের ছবিগুলোতে শোয়েব ও আয়েশাকে বেশ ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখা গিয়েছিল। পুলের জলে নেমে দুজন সিক্ত শরীরে ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছিলেন।

দুই অভিনেত্রীর সঙ্গে 'পরকীয়ার' গুঞ্জন শোয়েব মালিকের!

 

পাক অভিনেত্রীর সঙ্গে শোয়েবের এমন ঘনিষ্ঠ ছবি দেখে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছিলেন— দুজনের মধ্যে কোনো সম্পর্ক গড়ে উঠেছে কিনা।

পুলের পানিতে শোয়েবের সঙ্গে রীতিমতো রোমান্সে মজেছিলেন অভিনেত্রী আয়েশা। গাঢ় কমলা রঙের পোশাকে উষ্ণতা ছড়িয়েছিলেন তিনি। তাকে জড়িয়ে ধরে ছবি তুলেছিলেন শোয়েব। তার পরনে ছিল হালকা বেগুনি রঙের শার্ট।

শুধু পুলের জলে দাঁড়িয়ে নয়, সংশ্লিষ্ট ম্যাগাজিনের জন্য আরও একাধিক ছবি তুলেছিলেন দুই পাক তারকা। কখনো তাদের দেখা গিয়েছিল শোবারঘরে রোমান্টিক ভঙ্গিতে দাঁড়াতে, কখনোবা আবার খাবার টেবিলে দুজনের খুনসুটি ধরা পড়েছিল ক্যামেরায়।

তবে সম্পর্কের বিষয়ে শোয়েব কিংবা আয়েশা কেউ মুখ খোলেননি। সানিয়া-শোয়েবের বিবাহবিচ্ছেদের গুঞ্জন শুরু হলে অনেকে মনে করছেন, আয়েশার সঙ্গে গোপনে সাবেক পাক ক্রিকেটারের সম্পর্ক গড়ে উঠেছে কিনা। সে কারণেই কি সানিয়ার সঙ্গে সম্পর্কে ভাঙনের সূত্রপাত?

অবশ্য আয়েশা নন, অন্য এক পাকিস্তানি অভিনেত্রীর সঙ্গেও শোয়েবের সম্পর্ক নিয়ে জল্পনা চলছে। চলতি বছরের শুরুর দিকে পাকিস্তানের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মাহিরা খানের সঙ্গে শোয়েব মালিকের নাম জড়িয়েছিল।

মাহিরার সঙ্গে ইনস্টাগ্রাম লাইভে একবার আড্ডায় বসেছিলেন শোয়েব। দেশের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা চলছিল। সেই শোতে দেখা গিয়েছিল—অভিনেত্রীর সঙ্গে রীতিমতো ‘ফ্লার্ট’ করছেন সানিয়ার স্বামী।

লাইভে মাহিরা বলেছিলেন—আমাদের দুজনেরই বয়স বেড়ে গেছে। তার উত্তরে শোয়েবকে বলতে শোনা গিয়েছিল, তার নিজের বয়স বেড়েছে ঠিকই, তবে মাহিরার বয়স বাড়েনি। মজার ছলেই মাহিরা তখন শোয়েবকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, ভাবি এই লাইভ দেখেছেন কি?

মাহিরার প্রশ্নের জবাবে শোয়েব জানিয়েছিলেন, সানিয়া তাদের লাইভ দেখছেন। তবে তিনি মাহিরার ‘ভাবি’ নন। হাসতে হাসতে তখন অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন, সানিয়া গোটা পাকিস্তানের ‘ভাবি’।

শোয়েব, মাহিরার এই কথোপকথনের পরিপ্রেক্ষিতে সানিয়ার প্রতিক্রিয়াও পাওয়া গিয়েছিল। ইনস্টাগ্রামেই তিনি লিখেছিলেন, ‘হ্যাঁ, আমি দেখতে পাচ্ছি তোমরা দুজন কী নিয়ে কথা বলছ।’

ইনস্টাগ্রামে সেই শোর পরেই গুঞ্জন— মাহিরার সঙ্গে পাক ক্রিকেটারের কোনো ‘গোপন সম্পর্ক’ গড়ে উঠেছে কিনা। সানিয়া-শোয়েবের বিচ্ছেদের গুঞ্জনের মাঝে মাহিরার সঙ্গে সম্পর্কের গুঞ্জন আরও ডালপালা মেলেছে।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমে দাবি করা হয়েছে, সানিয়া-শোয়েবের দীর্ঘ ১২ বছরের দাম্পত্যে ভাঙন ধরতে চলেছে। ২০১০ সালের ১২ এপ্রিল তাদের বিয়ে হয়।

ক্রীড়া জগতের অন্যতম জনপ্রিয় দম্পতি হিসেবে পরিচিত তারা। তাদের বিচ্ছেদের গুঞ্জন রীতিমতো শোরগোল ফেলে দিয়েছে।

সর্বশেষ