আজ থেকে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু

বাংলা প্রথম পত্রের মধ্য দিয়ে দেশজুড়ে আজ রবিবার শুরু হচ্ছে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। এবার পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে বিভিন্ন পদক্ষেপের পাশাপাশি শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের জন্য বিশেষ বিধান জারি করা হয়েছে।

গতকাল শনিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়, সময়সূচি অনুযায়ী বিষয় কোড, পত্র ও সেট কোড নিশ্চিত হয়ে কেন্দ্রে প্রশ্নপত্র বিতরণ করা হবে। প্রশ্নের সেট কোড ঘোষণা করা হবে পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে।

 

ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ছাড়া অন্য কেউ হলের কক্ষে মোবাইল ফোন বা অননুমোদিত ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করতে পারবেন না। কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান বা শিক্ষক পরীক্ষায় বেআইনি কোনো কাজ করলে তাঁদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রয়োজনে পরীক্ষাকেন্দ্র বাতিল করা হবে। প্রশ্ন ফাঁস রোধে ৩ নভেম্বর থেকে ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধের নির্দেশনা আগে থেকেই রয়েছে।

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু আজ

 

বিধি-বিধানে আরো বলা হয়েছে, পরীক্ষাসংশ্লিষ্ট ব্যক্তি, যেমন—পরীক্ষার্থী, কক্ষ পরিদর্শক, মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্র পরিদর্শক দল, বোর্ডের কেন্দ্র পরিদর্শক দল, জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের পরিদর্শকদল, নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্য ছাড়া অন্য কেউ কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবেন না। পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার হলে প্রবেশ করতে হবে পরীক্ষা শুরুর অন্তত ৩০ মিনিট আগে।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি গতকাল এক ভিডিও বার্তায় বলেছেন, ‘প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজবমুক্ত, নকলমুক্ত, সুষ্ঠু ও ইতিবাচক পরিবেশে পরীক্ষা সম্পন্ন করার সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। আমরা আশা করি, কোথাও কোনো বিঘ্ন ঘটবে না। অভিভাবকদের প্রতি আবেদন, তাঁরা যেন পরীক্ষাকেন্দ্রের বাইরে অনাকাঙ্ক্ষিত জটলা তৈরি না করেন। শিক্ষকদের প্রতি অনুরোধ, কোনোভাবেই যেন নেতিবাচক ঘটনা না ঘটে। সবাইকে বিধি-বিধান মেনে চলার আহবান জানাচ্ছি। ’

এ বছর এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে মোট ১২ লাখ তিন হাজার ৪৭ জন পরীক্ষার্থী। এর মধ্যে ছাত্র ছয় লাখ ২২ হাজার ৭৯৬ জন এবং ছাত্রী পাঁচ লাখ ৮০ হাজার ৬১১ জন। মোট দুই হাজার ৬৪৯টি কেন্দ্রে ৯ হাজার ১৮১টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশ নেবে। অন্যদিকে মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে আলিম পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ৯৪ হাজার ৭৬৩ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৫১ হাজার ৬৯৫ জন এবং ছাত্রী ৪৩ হাজার ৬৮ জন। দুই হাজার ৬৭৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরীক্ষার্থীরা মোট ৪৪৮টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নেবে।

সর্বশেষ