আম্পায়ারিং নিয়ে আইসিসির কাছে যাবে বিসিবি

২০১৬ টি ২০ বিশ্বকাপে বেঙ্গালুরুতে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ। তার আগেরদিনই নিষেধাজ্ঞা এলো পেসার তাসকিন আহমেদ ও বাঁ-হাতি স্পিনার আরাফাত সানির বোলিংয়ের ওপর। তারা খেলতে পারবেন না।

বার তাসকিন আহমেদকে কোনো আইনে বাইরে রাখা যায়নি। আর পরিণত তাসকিন অসাধারণ বোলিং করেছেন। চার ওভারে দিয়েছেন মাত্র ১৫ রান। এবার তাসকিন থাকতেই জন্ম হলো আরেকটি দুঃখগাথার। এবার শেষ পাঁচ ওভারে বাংলাদেশ মেলাতে পারেনি ৫২ রানের সমীকরণ। অ্যাডিলেডে শেষ বলে পাঁচ রানের হৃদয়ভাঙা হারের পর এবার আলোচনায় বাজে আম্পায়ারিং। আইসিসির কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

সাকিব আল হাসান সাধারণত সংবাদ সম্মেলনে এতটা আফসোস করেন না। ভারতের বিপক্ষে বারবার এভাবে তীরে এসে তরী ডোবায় হতাশ দলের সবাই। লিটন দাসের আলো ছড়ানো ইনিংস, তাসকিনের দারুণ বোলিং বিফলেই গেল। ফেক ফিল্ডিংয়ের জন্য ভারতের পাঁচ রান কাটা গেলেও ম্যাচটি বাংলাদেশের হয়ে যেত। বাংলাদেশের রান তাড়ায় সপ্তম ওভারে ফেক ফিল্ডিং করেছিলেন বিরাট কোহলি। বিষয়টি তাৎক্ষণিক আম্পায়ারকে জানানো হলেও প্রাপ্য পাঁচ রান পেনাল্টি পায়নি বাংলাদেশ।

বারবার এমন আফসোস পোড়ানো ম্যাচে হতাশ হতেও যেন ভুলে যাচ্ছে বাংলাদেশ। যেমন বৃষ্টির পর মাঠ খেলার উপযোগী ছিল কিনা জানতে চাইলে সাকিব বলেন, ‘না খেলে কী উপায় আছে।’ এরপর তিনি বলেন, ‘এখানে আম্পায়ার যা বলবেন সেটাই সঠিক সিদ্ধান্ত। আমরা দুদল নিজেদের খেলা খেলেছি। ম্যাচটা ভালো হয়েছে তাতেই খুশি।’

সাকিবের অভিব্যক্তিতে অনেক কিছুই ফুটে উঠছিল। অধিনায়ক হওয়ায় বাজে আম্পায়ারিং নিয়ে সরাসরি কিছু বলতে পারেননি। তবে কয়েকজন খেলোয়াড় খুবই রাগান্বিত হয়ে মাঠ ছাড়েন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন বলেন, ‘আমরা তো খেলোয়াড়, কিছু বলতে পারি না। আপনারা কেন বলেন না?’

তাসকিনের ভাগ্যটাই আসলে খারাপ। তার বোলিংয়ে ক্যাচ মিস হওয়া যেন নিয়তি। এমন হারের পর বেশি আবেগতাড়িত হয়েছিলেন তাসকিনই। কারণ ব্যাটিংয়েও তিনি সমর্থন দিয়েছেন ঠিকঠাক। তবে বিসিবি বিষয়টা হজম করতে পারছে না।

মঙ্গলবার ম্যাচ শেষে টিম ম্যানেজমেন্ট নিজেদের মধ্যে আলোচনা করেছে কী করা যায়। ফল হওয়া ম্যাচে আর কিছু করার থাকবে না ঠিকই কিন্তু আম্পায়ারিং নিয়ে আইসিসির কাছে জানতে চাইবে বিসিবি। বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস কাল টিম হোটেলে বলেন, ‘আমরা আইসিসির কাছে আম্পায়ারিং নিয়ে জানতে চাইব।’ হারের মতো এই জানতে চাওয়াটাও হয়তো আরেকটি আফসোসের উপলক্ষ্য হয়ে থাকবে…।

সূত্র: যুগান্তর

সর্বশেষ