এমএইচ শমরিতায় মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে যোগ দিলেন ঐশী

 

 

এ সময়ের আলোচিত কণ্ঠশিল্পীদের একজন ফাতিমা তুয যাহরা ঐশী। ঐশী এক্সপ্রেস অ্যালবাম দিয়ে তাঁর যাত্রা শুরু হয়। মেলোডি ও আধুনিকে যেমন, তেমনই ভিন্নধারায় প্রবাহিত ঐশীর ফোক গানের কণ্ঠ। অডিও, প্লেব্যাকের পাশাপাশি স্টেজ শোতেও তিনি সমানতালে কাজ করে যাচ্ছেন।

এমএইচ শমরিতায় মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে যোগ দিলেন ঐশী

ফাতিমা তুয যাহরা ঐশী

এবার ঐশীর পালকে একটি নতুন পরিচয় যুক্ত হলো। এমবিবিএস পাশ করে চিকিৎসক হয়েছিলেন বছর খানেক আগে। এতোদিন ধরে ঐশীর ইন্টার্নশিপ চলছিল। সেটা শেষ করে আজ মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে যোগ দিলেন এম এইচ  শমরিতা হাসপাতালের সিসিইউতে। বিষয়টি কালের কণ্ঠকে নিশ্চিত করেছেন ঐশী নিজেই।

মঙ্গলবার বিকেলে কালের কণ্ঠকে ঐশী বলেন, ‘চিকিৎসক হিসেবে দায়িত্বের সঙ্গে কাজ শুরু করেছিলাম বছর খানেক আগেই। যদিও সেটা ইন্টার্নশিপ ছিল তারপরেও যথাযথভাবেই দায়িত্ব পালন করে গিয়েছি। আজ মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে চাকরি শুরু করলাম। এটা আমার জীবনের অন্যতম দিন। ’

কার্ডিওলজি বিভাগের সিসিইউতে মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন ঐশী। এ প্রসঙ্গে ঐশী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমার সবচেয়ে পছন্দের জায়গা সিসিইউ। আর চাকরির শুরুতে আমার পছন্দের জায়গাতেই দায়িত্ব পেয়েছি এটা অনেক ভালো লাগার মতো একটি বিষয়। দোয়া করবেন যেন নির্ভরতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে পারি। ’

ফাতিমা তুয যাহরা ঐশী চিকিৎসক হতে এম এইচ শমরিতা মেডিক্যাল কলেজে এমবিবিএসে ভর্তি হন। শিক্ষার্থী অবস্থাতেই পড়াশোনা নিয়ে তিনি বেশ সিরিয়াস ছিলেন। যেখানেই যেতেন সাথে বই পত্র নিয়ে যেতেন ঐশী। স্টুডিওতে কণ্ঠ দিতে গেলেও সাথে থাকতো মেডিক্যালের নোটস।

একটু ফাঁক পেলেই নোটসে চোখ বুলাতে শুরু করেন। ঐশী বলেছিলেন, ‘মেডিক্যালের পড়াশোনায় অনেক চাপ। গানের পাশাপাশি মেডিক্যালের পড়াশোনাও করতে হয়। কণ্ঠশিল্পীর পাশাপাশি আমি একজন প্রতিষ্ঠিত ডাক্তার হতে চাই। ’

আপাতত কণ্ঠশিল্পী ঐশীর সে চিকিৎসক হবার স্বপ্নপূরণ হলো।

সর্বশেষ