বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতির আলোর দিশারী : ড.কলিমউল্লাহ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২ তম জন্মোৎসব উপলক্ষ্যে জানিপপ কর্তৃক আয়োজিত জুম ওয়েবিনারে এক বিশেষ সেমিনারের ৪৫৪তম পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।
জানিপপ-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর ড.মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন,ইউএন ডিজিবিলিটি রাইটস চ্যাম্পিয়ন ও অনারারি প্রফেসর আবদুস সাত্তার দুলাল এবং গেস্ট অব অনার হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন, রংপুর মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আর্জিনা খানম।
সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন,কুষ্টিয়া থেকে সিনিয়র সাংবাদিক হুমায়ুন কবির ও যশোর থেকে নুর এ আলম জাহিদ ।
মুখ্য আলোচক হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন নারী উদ্যোক্তা আমাতুন নূর শিল্পী।

সভাপতির বক্তৃতায় ড.কলিমউল্লাহ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, বাঙালি জাতির আলোর দিশারী বঙ্গবন্ধু।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুস সাত্তার দুলাল বলেন, বঙ্গবন্ধু নেই কিন্তু তার অপরাজেয় আদর্শ টিকে আছে প্রতিটি বাঙালির হৃদয়ে। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যদি বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক আদর্শ অনুসরণ করে রাজনীতিতে এগিয়ে আসে তবে বাংলাদেশের রাজনীতিতে একটি ইতিবাচক এবং আমূল পরিবর্তন সাধিত হবে ।বাঙালি জাতি সেদিকেই তাকিয়ে আছে বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।

আর্জিনা খানম বলেন, ৭ই মার্চের ভাষণ বিশ্বের বুকে একটি স্বাধীন জাতিরাষ্ট্রের উদ্ভব ঘটায়, যা বিশ্বের ইতিহাসে একটি অনন্য নজিরবিহীন ঘটনা।
আমাতুন নূর শিল্পী বলেন,বাঙালির হাজার হাজার বছরের ইতিহাসে কখনো তার আত্মপরিচয়ের সন্ধান ছিল না, কখনো তার আত্মপরিচয়ের ইতিহাস ছিল না। বঙ্গবন্ধু উপাধি প্রাপ্ত এই মহান মানুষটি এই জাতির অপ্রাপ্তির যাতনার অবসান ঘটিয়েছেন।
হুমায়ুন কবির বলেন,স্বাধিকার সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের ফলে বাঙালি জাতি, বাংলাদেশ এবং বঙ্গবন্ধু সমার্থক শব্দে পরিণত হয়েছিল।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য প্রদান করেন, নূর এ আলম জাহিদ।

সেমিনারটি সঞ্চালনা করেন আমেরিকার মিলেনিয়াম টিভির কান্ট্রি ডিরেক্টর ও রয়্যাল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা’র সহযোগী অধ্যাপক,বিভাগীয় প্রধান ও ডেইলি প্রেসওয়াচ সম্পাদক ড. দিপু সিদ্দিকী।
সেমিনারে অন্যন্যের মধ্যে সংযুক্ত ছিলেন, ইন্টারন্যাশনাল রবীন্দ্র রিসার্চ ইনস্টিটিউট এর পরিচালক ও সহযোগী অধ্যাপক ফারহানা আকতার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত প্রকৌশলী শাফিউল বাশার, রাজশাহী থেকে ডা.মনোয়ার ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে ডা.বায়েজিদা ফারজানা।

সর্বশেষ