ঢাকাবাসীর আস্তা ও নির্ভরতার প্রতীক হবে ডিএমপি ঃ নবনিযুক্ত কমিশনার

হাসানুজ্জামান সুমন বিশেষ প্রতিনিধি ঃ জনমুখী পুলিশি সেবা দ্রুত নিশ্চিতকরণ, সমকালীন অপরাধের ধরন ও গতিপথ বিবেচনা করে বিশেষ করে সাইবার অপরাধ নিয়ন্ত্রণে যুগোপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণসহ ডিএমপিকে নগরবাসীর আস্থা ও নির্ভরতার প্রতীকে পরিণত করতে সর্বোচ্চ প্রয়াস থাকবে বলে জানিয়েছেন নবনিযুক্ত ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলম ফারুক বিপিএম(বার), পিপিএম।
ডিএমপি কমিশনার হিসেবে দায়িত্বগ্রহণের পর আজ সোমবার (৩১ অক্টোবর ২০২২ খ্রি.) দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত ‘কমিশনার’স মিট দ্য প্রেস’-এ সকলের উদ্দেশ্যে একথা বলেন তিনি।
কমিশনার বলেন, পুলিশ ও সাংবাদিকদের পেশাগত কাজে যথেষ্ট মিল রয়েছে। উভয়ে সত্যের সন্ধানে এবং কল্যাণার্থে কাজ করে। পারস্পরিক শ্রদ্ধা, সৌহার্দ্য এবং সহযোগিতার মানসিকতা নিয়ে দেশ সেবায় সকলে একত্রে কাজ করবো।
বক্তব্যের শুরুতে মহান সৃষ্টিকর্তার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে তিনি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর নেতৃত্বে মহান মুক্তিযুদ্ধে সকল বীর শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। বাংলাদেশ পুলিশের সর্ববৃহৎ ইউনিট ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ৩৫তম কমিশনার হিসেবে নিযুক্ত করায় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইজিপির প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও গভীর কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।
থানার সেবার মান মনিটরিং করা যায়।
সাংবাদিকদের প্রশ্নোত্তরে তিনি আরও বলেন, রাজনৈতিক ক্ষেত্রে আমাদের কোন ভূমিকা নেই। আমাদের কাজ হচ্ছে আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ করা। রাজনীতির নামে কেউ সহিংসতা ছড়ালে বা ফৌজদারি অপরাধ করলে তা কঠোরভাবে দমন করা হবে।
আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মাদক নির্মূলেও আমাদের জিরো টলারেন্স নীতি। মাদক নিয়ন্ত্রণে সাপ্লাই লাইন ও ডিমান্ড লাইন বন্ধ করতে হবে। মাদকসেবীদের চিকিৎসার মাধ্যমে পুনর্বাসন করে ডিমান্ড লাইন বন্ধ করলে মাদক ব্যবসায়ীদের সাপ্লাই লাইন এমনিতেই বন্ধ হয়ে যাবে।
জঙ্গি দমনেও আমরা কাজ করে যাচ্ছি আমাদের সাইবার মনিটরিং টিম প্রতিনিধি কাজ করে যাচ্ছে সেই সাথে সিআইএমএস পদ্ধতি মনিটারিং করে জঙ্গিদের নজরদারি করা হচ্ছে অতীতে জঙ্গি দমনে পুলিশ যে ভূমিকা রেখেছে ভবিষ্যতেও এই ভূমিকা থাকবে। উন্নত বিশ্ব যেখানে জঙ্গি দমনে হিমশিম খাচ্ছে সেখানে বাংলাদেশ পুলিশ জঙ্গি দমন করে বিশ্বের কাছে ভূয়সী প্রসংশা পেয়েছে, মর্মে যোগ করেন তিনি।
মিট দ্য প্রেসের শুরুতে নবনিযুক্ত ডিএমপি কমিশনারের বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবন নিয়ে একটি সংক্ষিপ্ত প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয় এবং ফুল দিয়ে স্বাগত জানান ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ ফারুক হোসেন।
এসময় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অ্যাডমিন) মীর রেজাউল আলম বিপিএম(বার); অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার(ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশনস্)এ কে এম হাফিজ আক্তার বিপিএম (বার); অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মোঃ মুনিবুর রহমান; অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (সিটিটিসি) মোঃ আসাদুজ্জামান বিপিএম(বার), অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার(গোয়েন্দা) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বিপিএম-বার, পিপিএম(বার), যুগ্ম-পুলিশ কমিশনারবৃন্দ, উপ-পুলিশ কমিশনারবৃন্দসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ