ব্যাংক থেকে বড় অঙ্কের ঋণ নিয়েছে সরকার

চলতি অর্থবছরের আগস্ট পর্যন্ত সরকার ব্যাংক খাত থেকে ঋণ না নিয়ে উলটো পরিশোধ করেছে। কিন্তু সেপ্টেম্বরেই সে চিত্র পালটে গেছে। হঠাৎ করে বেড়েছে সরকারের ব্যাংক ঋণ। গত এক মাসে ব্যাংক খাত থেকে ১৫ হাজার কোটি টাকার বেশি ঋণ নিয়েছে সরকার।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ব্যয় সংকোচন নীতির কারণে অর্থবছরের শুরুর দিকে সরকারের অর্থের চাহিদা কম ছিল। এখন কিছু প্রকল্প চালু হয়েছে। এছাড়া রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে বিশ্ববাজারে খাদ্য ও জ্বালানির দাম বেড়েছে। এতে খাদ্য ও জ্বালানি আমদানিতে আগের চেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করতে হচ্ছে। তবে যে হারে অর্থ খরচ বেড়েছে সেই হারে আয় না বাড়ায় ব্যাংক থেকে ঋণ নিতে হচ্ছে।

ব্যাংক থেকে বড় অঙ্কের ঋণ নিয়েছে সরকার

 

বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সরকারের ব্যাংক খাত থেকে নিট ঋণ ১২ হাজার ৫২৬ কোটি বেড়ে স্থিতি দাঁড়ায় ২ লাখ ৮২ হাজার ৭১২ কোটি টাকা। এক মাস আগে ৩০ আগস্ট এ ঋণের অঙ্ক ছিল ২ লাখ ৬৭ হাজার ৫২ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক মাসে সরকার ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছে ১৫ হাজার ৬৫৯ কোটি টাকা।

হঠাৎ করে সরকারের ঋণ বৃদ্ধির বিষয়ে জানতে চাইলে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অর্থ উপদেষ্টা ড. এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, সরকারের খরচ বেড়েছে। ব্যয়ের চেয়ে আয় কম হওয়ায় বাড়তি অর্থের চাহিদা মেটাতে এখন ব্যাংক থেকে ঋণ করছে। তবে সরকার তিন মাসে যে পরিমাণ ব্যাংক ঋণ নিয়েছে তা তাদের লক্ষ্যের চেয়ে বেশি নয়। তাই এ ঋণ নিয়ে তেমন শঙ্কারও কারণ নেই।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা যায়, চলতি (২০২২-২৩) অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে ব্যাংক খাত থেকে ঋণ না নিয়ে উলটো পরিশোধ করেছিল সরকার। গত ৩০ আগস্ট পর্যন্ত দুই মাসে ব্যাংক থেকে সরকারের নিট ঋণ ৩১৩৪ কোটি টাকা কমে দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৬৭ হাজার ৫২ কোটি টাকায়। গত জুন শেষে স্থিতি ছিল ২ লাখ ৭০ হাজার ১৮৬ কোটি টাকা। চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট ঘাটতি পূরণে ব্যাংক থেকে ১ লাখ ৬ হাজার ৩৩৪ কোটি টাকার ব্যাংক ঋণ নেবে বলে লক্ষ্য ঠিক করেছে সরকার। এই অঙ্ক চলতি অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২৯ হাজার ৮৮২ কোটি টাকা বেশি। আগের অর্থবছরের বাজেটে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে ৭৬ হাজার ৪৫২ কোটি টাকা ঋণ নেওয়ার লক্ষ্য ছিল।

চলতি অর্থবছরে সঞ্চয়পত্র থেকে ৩৫ হাজার কোটি টাকা ঋণ নেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে। জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরের তথ্য বলছে, চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের জুলাইয়ে ৭ হাজার ১৮ কোটি ৪৩ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র জমা বা বিক্রি হয়েছে। এর মধ্যে মূল টাকা ও মুনাফা পরিশোধ করা হয়েছে ৬ হাজার ৬২৫ কোটি ৩২ টাকা। সঞ্চয়পত্রের মূল টাকা ও মুনাফা পরিশোধের পর এ খাতে সরকারের নিট ঋণ দাঁড়িয়েছে ৩৯৩ কোটি ১১ লাখ টাকা। এদিকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের পতনের মধ্যেও ডলার বিক্রি বাড়িয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। চলতি অর্থবছরের শুরু থেকে ৪ অক্টোবর পর্যন্ত বিভিন্ন ব্যাংকের কাছে ৩৭৫ কোটি ডলারের বেশি বিক্রি করেছে। এর বিপরীতে বাজার থেকে উঠে এসেছে ৩৬ হাজার কোটি টাকার বেশি। মূলত আমদানিতে খরচ বাড়লেও রপ্তানি ও রেমিট্যান্সে পতন এবং অনেক বিদেশি ব্যাংকে ঋণসীমা কমানোয় এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

সর্বশেষ