বঙ্গবন্ধুর অন্তর্দৃষ্টি ছিল খুবই তীক্ষ্ণ: ড.কলিমউল্লাহ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২ তম জন্মোৎসব উপলক্ষ্যে জানিপপ কর্তৃক আয়োজিত জুম ওয়েবিনারে এক বিশেষ সেমিনারের ৪৪০তম পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।
জানিপপ-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর ড.মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন, ইউএন ডিজএ্যাবিলিটি রাইটস চ্যাম্পিয়ন ও অনারারি প্রফেসর আবদুস সাত্তার দুলাল এবং গেস্ট অব অনার হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন, রংপুর মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আর্জিনা খানম ও কুষ্টিয়া থেকে সিনিয়র সাংবাদিক হুমায়ুন কবির ও শিল্প উদ্যোক্তা আমাতুন নূর শিল্পী।
সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন মালয়েশিয়া থেকে পিএইচডি গবেষক কাজী ফারজানা ইয়াসমিন, যশোর থেকে নুর এ আলম জাহিদ, নীলফামারীর জলঢাকা থেকে পিএইচডি গবেষক ফাতিমা তুজ জোহরা ।
সেমিনারে মুখ্য আলোচক হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন গোপালগঞ্জস্থ বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়’র ইনস্টিটিউট অফ লিবারেশন ওয়ার এন্ড বাংলাদেশ স্টাডিজের অধীনে পিএইচডি গবেষণারত প্রশান্ত কুমার সরকার।

সভাপতির বক্তৃতায় ড.কলিমউল্লাহ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, বঙ্গবন্ধুর অন্তর্দৃষ্টি ছিল খুবই তীক্ষ্ণ। পাশাপাশি সংস্কৃতির প্রতি ছিল তাঁর প্রগাঢ় দুর্বলতা, আন্তরিকতা ও ভালোবাসা। তিনি আরো বলেন,স্বাধীনতার পর যখন আমাদের সম্পদ, আমাদের অর্থ অত্যন্ত সীমিত, তখন ১৯৭৫ সালে রাঙ্গামাটির বেতবুনিয়ায় ভূ-উপগ্রহ স্টেশন চালু করেছিলেন বঙ্গবন্ধু।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবদুস সাত্তার দুলাল বলেন,অগ্রজ সতীর্থদের সঙ্গে যূথবদ্ধ হয়ে রাজনীতি করতেন বঙ্গবন্ধু। অগ্রজের প্রতি বঙ্গবন্ধুর সম্মানবোধ ছিল আমৃত্যু।

আর্জিনা খানম বলেন,বঙ্গবন্ধু ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতিতে নিজেকে নিবেদিত রেখে ভারতবর্ষের রাজনীতি সম্পর্কে পুঙ্খানুপুঙ্খ অনুধাবন করতে পেরেছিলেন।
প্রশান্ত কুমার সরকার বলেন, শিক্ষাকে সম্প্রসারিত করার এবং উন্মুক্ত ও স্বাধীনভাবে চলতে দেওয়ার নানা আয়োজনে সম্পৃক্ত ছিলেন বঙ্গবন্ধু।
আমাতুন নূর বলেন,স্বাধীনতার পর যখন একটি দেশ অবকাঠামো, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, অর্থনৈতিকভাবে বিপর্যস্ত, তখন দেবদূতের মতো এসে হাল ধরেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

সাংবাদিক হুমায়ুন কবির বলেন, বাঙালি হিসেবে এবং বাঙালি সংস্কৃতির নির্যাসিত জাতিসত্তায় গর্বিত বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ বিশ্বে মাথা উচুঁ করে বেঁচে থাকবে অনন্তকাল।
কাজী ফারজানা ইয়াসমিন মালয়েশিয়ার শিক্ষার পরিবেশের সঙ্গে বাংলাদেশের শিক্ষার পরিবেশের একটি তুলনামূলক সংক্ষিপ্ত আলোচনা তুলে ধরে বলেন, শিক্ষার প্রতি বঙ্গবন্ধুর যে ভালোবাসা ও একাগ্রতা ছিল, তা প্রতিফলিত হয়েছে স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালের ২৬ জুলাই দেশসেরা বিজ্ঞানী ড. কুদরত-ই-খুদাকে নিয়ে শিক্ষা কমিশন গঠন করার মাধ্যমে।
নূরে আলম জাহিদ বলেন,বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন, প্রচেষ্টা, আকাঙ্ক্ষা বাস্তবায়নের জন্য যে সময়ের দরকার ছিল, ঘাতকদের কারণে সেটা তিনি পাননি। তবে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ধারাবাহিকভাবে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন তারই সুযোগ্য উত্তরসূরী প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা।

সেমিনারটি সঞ্চালনা করেন আমেরিকার মিলেনিয়াম টিভির কান্ট্রি ডিরেক্টর ও রয়্যাল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা’র সহযোগী অধ্যাপক,বিভাগীয় প্রধান ও ডেইলি প্রেসওয়াচ সম্পাদক দিপু সিদ্দিকী।
সেমিনারে অন্যন্যের মধ্যে সংযুক্ত ছিলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত প্রকৌশলী শাফিউল বাশার, রাজশাহী থেকে ডা. মাহবুবুল হক ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে ডা.বায়েজিদা ফারজানা।

সর্বশেষ