ভৈরবে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ৬ প্রতিষ্ঠান কে অর্থদন্ড

এম আর ওয়াসিম ভৈরব( কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ৬ প্রতিষ্ঠান কে ১ লক্ষ ২৪ হাজার টাকা অর্থদন্ড করা হয়েছে। মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। মোবাইল কোর্টের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কমিশনার( ভূমি) জুলহাস হোসেন সৌরভ। অভিযানে সহযোগী হিসেবে উপস্থিত ছিলেনবিএসটি আইয়ের একজন প্রতিনিধি এবং ভৈরব থানা পুলিশ ফাড়িঁর সদস্য বৃন্দ। আজ ১৯ সেপ্টেম্বর সোমবার ভৈরব বাজারে মোবাইল উক্ত মোবাইল পরিচালিত হয়।

এ সময় নিয়ম বিধি না মেনে ব্যবসা পরিচানা করার জন্য ৬ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক কে মোট ১,২৪,০০০/- টাকা অর্থদণ্ড করা হয়।

ভৈরব বাজারের মিষ্টি পট্টির ভূইয়া স্টোরকে সিলগালা করা হয় এবং স্বত্বাধিকারী হাজী মাহবুবুর রহমানকে ৮০,০০০/- টাকা অর্থদণ্ড করা হয়। বিভিন্ন অবৈধ কোম্পানির প্যাকেট সরবরাহ করায়, নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যাগ সরবরাহ করায়, অবৈধ কয়েল “হরতাল এবং রাহিম” বাজারজাত করায় এবং অবৈধ কয়েলের কাচামাল সরবরাহ করায় এবং অনুমোদন ব্যতীত বিভিন্ন ক্যামিকাল বিক্রি ও সরবরাহ করায় এ দন্ড প্রদান করা হয়।

তাছাড়া রাস্তা দখল করে ব্যবসা পরিচালনা করায় এবং মূল্য তালিকা না থাকায় মিষ্টি পট্টির আব্দুল গফফারকে ৫,০০০/- টাকা করা হয়। দোকান থাকা স্বত্বেও রাস্তা দখল করে কাপড়ের ব্যবসা পরিচালনা করায় মোঃ খুর্শিদ মিয়াকে ২,০০০/- টাকা
করা হয়। অবৈধভাবে খোলাপন্য মোড়কজাত করে বেশি মূল্যে পন্য বিক্রি করায় কালীবাড়ি রোডের মোঃ আরশ মিয়াকে ১০,০০০/- টাকা, দোকান থাকা স্বত্বেও ফুটপাত দখল করে ব্যবসা পরিচালনা করায় চকবাজারের এয়াকুবকে ২,০০০/- টাকা, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য তৈরি করায়, কর্মচারীদের স্বাস্থ্য সনদ না থাকায় এবং অন্যান্য সনদ মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় নাটাল মোড়ের নন্দন ফুড প্রোডাক্টসকে ২৫,০০০/- টাকা অর্থদন্ড করা হয়। এসময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হুশিয়ারী দিয়ে বলেন যে, এক মাসের মধ্যে সকল অসংগতি সংশোধনের জন্য সতর্ক করা হয়েছে। জন স্বার্থে উক্ত অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

সর্বশেষ