ভৈরবে নৌ ডাকাত গ্রেফতার

এম আর ওয়াসিম , ভৈরব( কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ কিশোরগঞ্জের ভৈরবে আগানগর ইউনিয়নের লুন্দিয়া খলা পাড়ার হেলাল মিয়ার ইটাখলার উত্তর পাড়ে থেকে গতকাল ডাকাতির ঘটনায় একটি নৌকা উদ্ধার করে ভৈরব নৌ পুলিশ ইউনিট। উক্ত ঘটনায় সহিদ মিয়া (৩৮) নামে একজন কে গ্রেফতার করে ভৈরব নৌ পুলিশ ইউনিট। এসময় সহিদ মিয়ার ঘর থেকে দেশীয় অস্ত্র,টর্চলাইট ও ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত নৌকাসহ গ্রেফতার করেছে নৌ- থানা পুলিশ। সহিদ মিয়া আগানগর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের ফজলু মিয়ার ছেলে বলে জানা যায়।

সে উক্ত উক্ত ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের মেম্বার বলেও জানা যায়। ঘটনাসূত্রে জানা যায় যে, গতকাল ৩১শে জুলাই রবিবার ভৈরব পৌর এলাকার ৬ নং ওয়ার্ডের ছাত্রলীগের নেতাকর্মী গণ নিকলী হাওর ভ্রমনে যায়। ফিরতে পথে তাদের নৌকাটি লুন্দিয়া আসলে ৭/৮/ জনের একটি ডাকাত দল নৌকায় হামলা চালিয়ে ১৪ টি স্মার্ট ফোন ও প্রায় ৭৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এসময় কামাল নামে এক ছাত্রলীগ কর্মীকে মারাত্মক মারধর করে। ডাকাতির কবলে পড়া ছাত্রলীগ নেতা মুন্না বলেন গ্রেফতার হওয়া সহিদ ডাকাতির সময় উপস্থিত ছিল। সহিদই কামাল কে রাম দা দিয়ে আঘাত করে। ডাকাতির ঘটনায় সহিদ বলেন আমি একজন ইউপি সদস্য।

আমি ডাকাতি করিনি। একটি কুচক্রী মহল আমাকে ফাসিয়ে দিয়েছে। এবিষয়ে ভৈরব নৌ পুলিশ ইউনিটের উপ পরিদর্শক রাসেল আহমেদ জানান গতকাল ডাকাতির ঘটনায় অভিযোগের প্রেক্ষিতে আজ ১ আগস্ট অভিযান পরিচালনা করে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত নৌকাটি উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। উক্ত ঘটনায় সম্পৃক্ত সন্দেহ ভাজন সহিদ নামে একজন কে গ্রেফতার করে নিয়ে থানায় নিয়ে আসি। ডাকাতির ঘটনায় মাকসুদুল হাসান মুন্না বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে। উপপরিদর্শক রাসেল আহমেদ আরও জানান ৮জন কে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়। এর মধ্যে ৬ জন কে এজাহার নামীয় ও ২ জন অজ্ঞাত নামা আসামী করা হয়েছে।মামলা প্রক্রিয়া শেষে গ্রেফতারকৃত সহিদ কে কারাগারে পাঠানো হবে বলেও জানান তিনি।

সর্বশেষ