টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটকে বিদায় বললেন তামিমঃ

আকাশ দাশ, ক্রীড়া প্রতিবেদক। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে দিলেন দেশসেরা ওপেনার ব্যাটার তামিম ইকবাল খান। স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে বিশাল ব্যবধানে জয় নিয়ে আবারো ওয়েস্ট ইন্ডিজকে বাংলা ওয়াশের স্বাদ দিলো টিম টাইগার্স। তবে বাংলা ওয়াশের সেই স্বাদ থাকলো না টাইগার সমর্থকদের মুখে। ভোর রাতে সমর্থকদের চমকে দিলেন দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আর ফিরছেন না তিনি বরং এখন থেকে তাকে বাংলাদেশ জাতীয় দলের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে অবসরপ্রাপ্ত ক্রিকেটার হিসেবে বিবেচনাও করতে বলেছেন। ২০২০ সালের মার্চের পর থেকে তামিম আর টি-২০ খেলেননি। গত টি-২০ বিশ্বকাপ থেকেও নিজেকে সরিয়ে নেন স্বেচ্ছায়।

এই বছরের শুরুতে সাংবাদ মাধ্যমকে জানান, ৬ মাসের জন্য বিরতি নিচ্ছেন টি-২০ ফরম্যাট থেকে। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট থেকে বিশ্রামে থাকা তামিমের সেই সময় শেষ হবে আগামী ২৭শে জুলাই। যার জন্য বাংলাদেশ দলের বর্তমান পারফরম্যান্স বিবেচনায় তামিমকে বাংলাদেশ দলে চায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। যার জন্য কিছুদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে আলোচনা-সমালোচনার কমতি নেই। তবে এবার তামিম জানিয়ে দিলেন নিজের সিদ্ধান্ত। বাংলাদেশ সময় ভোর রাতে (৩ টায়) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার অফিসিয়াল ভেরিফাইড ফেসবুক পোস্টে জানিয়ে দিলেন তিনি আর টি-২০ খেলবেন না।

রাত তখন ৩টা পেরিয়েছে। তামিমের অবসরের ঘোষণার পোস্ট এলো ফেসবুক পোস্টে। নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে তামিম টি-২০ থেকে সর দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়ে লিখেছেন, “আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে আজকে থেকে আমাকে অবসরপ্রাপ্ত হিসেবে বিবেচনা করুন। ধন্যবাদ সবাইকে।” সঙ্গে যুক্ত করেছেন গুভবাই ইমোজিও। ২০০৭ সালের ১লা সেপ্টেম্বর কেনিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পথচলা শুরু হয় তামিম ইকবালের। ২০২০ সালের ৯ মার্চ মিরপুরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলেন শেষ টি-২০ ম্যাচ। যেখানে ৭৮ টি-২০ ম্যাচে ১ হাজার ৭৮৫ রান করেছেন এই ওপেনার। একটি শতকের সঙ্গে আছে সাতটি অর্ধশতক। বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে একমাত্র শতক হাঁকানোর পাশাপাশি সেরা রান সংগ্রাহকের তালিকায় আছেন সেরা তিনেও।

সর্বশেষ